April 16, 2024

২০০+ আ দিয়ে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ | আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নাম by

(২০০+ বাছাই করা) আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নাম – আ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ ২০২১-২২-২৩, আ দিয়ে মেয়ে বাবুদের সুন্দর নাম – আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নাম – ইসলামিক নাম মেয়েদের অর্থসহ আ দিয়ে

আ দিয়ে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ তালিকাঃ

(১) আনিফা – নামের অর্থ = মর্যাদাপূর্ণ, উজ্জ্বল।
(২) আমবারিন – নামের অর্থ = সুগন্ধিযুক্ত।
(৩) আদিফা – নামের অর্থ = যেটা আমরা গর্ব করতে পারি।
(৪) আদিভা – নামের অর্থ = আনন্দদায়ক, ভদ্র।
(৫) আধ্রিকা – নামের অর্থ = স্বর্গীয়।
(৬) আদিয়া – নামের অর্থ = শুরু, প্রথম শক্তি।
(৭) আদিবা – নামের অর্থ = ভদ্র, সংস্কৃত, সম্মান দেওয়া।
(৮) আদরিণী – নামের অর্থ = যে সকলের আদুরে।
(৯) আদিনা – নামের অর্থ = শুক্রবার।
(১০) আদিকা – নামের অর্থ = ক্ষমতা।

(১১) আনন্দি – নামের অর্থ = আনন্দ, সফল, বিজয়িনী।
(১২) আনিশা – নামের অর্থ = ভাল বন্ধু, গভীর ভাবুক, অন্তরঙ্গ।
(১৩) আননাম – নামের অর্থ = আল্লাহের আশীর্বাদ।
(১৪) আদিরা – নামের অর্থ = শক্তিশালী,  উন্নতচরিত্র, সুন্দর; ক্ষমতাশালী।
(১৫) আনকাত – নামের অর্থ = সৌন্দর্য,  কমনীয়তা।
(১৬) আনজা – নামের অর্থ = সৌন্দর্য।
(১৭) আনজলা – নামের অর্থ = উজ্জ্বল,  আলোকিত।
(১৮) আনজার – নামের অর্থ = চোখের দৃষ্টি ভালো থাকা।
(১৯) আনেসা – নামের অর্থ = বিশুদ্ধ,  শুদ্ধ।
(২০) আনিহা – নামের অর্থ = অনাগ্রহ, উদাসীন।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামগুলোঃ

(২১) আমরিনা – নামের অর্থ = রাজকুমারী।
(২২) আমরিয়া – নামের অর্থ = আল্লাহের দেওয়া।
(২৩) আমরা – নামের অর্থ = রাজকুমারী, নেতা।
(২৪) আমনাজ – নামের অর্থ = বিশ্বাসযোগ্য।
(২৫) আবেদা – নামের অর্থ = আল্লাহের একটি উপহার।
(২৬) আমতুল্লাহ – নামের অর্থ = আল্লাহর মহিলা বান্দা।
(২৭) আবিদা – নামের অর্থ = উপাসক,  ভক্ত।
(২৮) আবিবা – নামের অর্থ = প্রিয়।
(২৯) আফ্রি – নামের অর্থ = সুন্দর,  সুখ।
(৩০) আফেফা – নামের অর্থ = ধার্মিক, পবিত্র, মেজবান।

আ দিয়ে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম

(৩১) আফিলা – নামের অর্থ = বুদ্ধিমান।
(৩২) আফিয়া – নামের অর্থ = সুস্থ, প্রজ্ঞাময় – সুন্দর, প্রাণবন্ত।
(৩৩) আমরিয়াহ – নামের অর্থ = আল্লাহ প্রদত্ত, আল্লাহের অঙ্গীকার।
(৩৪) আফিদা – নামের অর্থ = হৃদয়, বিবেক।
(৩৫) আফি – নামের অর্থ = স্বর্গে সুগন্ধি নদী।
(৩৫) আফসিয়া – নামের অর্থ = আল্লাহের দান,  শান্তি,  উপহার।
(৩৬) আফসানা – নামের অর্থ = কথাসাহিত্য।
(৩৭) আফরিনা – নামের অর্থ = জ্ঞানদান।
(৩৮) আফরিন – নামের অর্থ = উৎসাহ,  সূর্য।
(৩৯) আনিয়াহ – নামের অর্থ = উদ্বিগ্ন, প্রেমময়।
(৪০) আনিদা – নামের অর্থ = অন্তহীন।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামের লিস্টঃ

(৪১) আনাসা – নামের অর্থ = বন্ধুত্বপূর্ণ, দয়ালু।
(৪২) আনাভিয়া – নামের অর্থ = করেছেন
(৪৩) আনসিনা – নামের অর্থ = আল্লাহ আশীর্বাদ করেছেন।
(৪৩) আনন্দিতা – নামের অর্থ = যে সর্বদা খুশিতে থাকে বা যাকে দেখামাত্র মন আনন্দে ভরে ওঠে।
(৪৪) আদিতা – নামের অর্থ = মহাবিশ্বের উৎপত্তিস্থল।
(৪৫) আদর্শিনী – নামের অর্থ = মায়াবাদিনী, আদর্শবাদিনী।

(৪৬) আতিহা – নামের অর্থ = দয়ালু, বিশুদ্ধ হৃদয়।
(৪৭) আতিয়াতুল্লাহ – নামের অর্থ = আল্লাহের কাছ থেকে উপহার।
(৪৮) আতিরা – নামের অর্থ = সুগন্ধযুক্ত।
(৪৯) আতিয়াফ – নামের অর্থ = চিন্তা, মনের ছবি।
(৫০) আতি্কা – নামের অর্থ = উদার, মহৎ, পরিষ্কার, কুমারী।
(৫১) আতিয়াহ – নামের অর্থ = উপহার, বর্তমান, আল্লাহের উপহার।
(৫২) আতুফা – নামের অর্থ = দয়ালু নারী।
(৫৩) আমবাড়া – নামের অর্থ = সুগন্ধি।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামঃ

(৫৫) আমনা – নামের অর্থ = শান্তি, নরম, কামনা, নিরাপত্তা।
(৫৬) আতুন – নামের অর্থ = শিক্ষাবিদ, শিক্ষিকা।
(৫৭) আতি্কা, আতিকা – নামের অর্থ = ভার্জিন, বিশুদ্ধ, পরিষ্কার।
(৫৮) আতুফ – নামের অর্থ = স্নেহশীল, দয়ালু হৃদয়।
(৫৯) আত্মজা – নামের অর্থ = কন্যা, মেয়ে, দুহিতা।
(৬০) আতেফে – নামের অর্থ = দয়ালু, স্নেহ, আবেগ।
(৬১) আত্তিকা – নামের অর্থ = একজন সুন্দরী মহিলা, মুক্তি।
(৬২) আতোসা – নামের অর্থ = ইরানের প্রথম রাজার কন্যা।

(৬৩) আথিকা – নামের অর্থ = উন্নতচরিত্র, প্রাচীন।
(৬৪) আমরিন – নামের অর্থ = প্রার্থনা, শক্তিশালী এবং সম্পূর্ণ।
(৬৫) আথির – নামের অর্থ = ফুল, গৌরবময়।
(৬৬) আদনা – নামের অর্থ = জান্নাত, আনন্দ, আনন্দ।
(৬৭) আদাজ – নামের অর্থ = অন্ধকার, কালো, বড় কালো চোখ দিয়ে।
(৬৮) আথের – নামের অর্থ = একটি তরবারি থেকে আলো প্রতিফলিত।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক  নাম ২০২২

(৬৯) আদনিয়াহ – নামের অর্থ = বাসিন্দা, অধিবাসী।
(৭০) আদমা – নামের অর্থ = আত্মা।
(৭১) আদলা – নামের অর্থ = বিচার, সৎ।
(৭২) আদলাই – নামের অর্থ = শুধু।
(৭৩) আদাইন – নামের অর্থ = মায়ের অনুরূপ, ডানাওয়ালা জায়গায় থাকেন।
(৭৪) আদানা – নামের অর্থ = আদমের মেয়েলি, পৃথিবী।
(৭৫) আভা – নামের অর্থ = উজ্জ্বলতা, উজ্জ্বলতা, সূর্যের রশ্মি, শক্তি।
(৭৬) আদিয়ান – নামের অর্থ = দ্বীনের বহুবচন (ধর্ম)।
(৭৭) আদাভিয়াহ – নামের অর্থ = গ্রীষ্মকালীন উদ্ভিদ, উদ্ভিদ একটি প্রকার।
(৭৮) আদারা – নামের অর্থ = সৌন্দর্য, অগ্নি, মহৎ, কুমারী।
(৭৯) আদিশ্রী – নামের অর্থ = গৌরবাণ্বিতা, মহামান্বিতা।
(৮০) আদালা – নামের অর্থ = বিচার, উন্নতচরিত্র।

(৮১) আদিআত – নামের অর্থ = বিদ্রোহী।
(৮২) আবেলা – নামের অর্থ = সুন্দর হতে।
(৮৩) আদীন – নামের অর্থ = লিটল ফায়ার।
(৮৪) আদিরা – নামের অর্থ = শক্তিশালী, উন্নতচরিত্র, সুন্দর, ক্ষমতাশালী।
(৮৫) আদ্যা – নামের অর্থ = দেবী দুর্গা, প্রথম শক্তি।
(৮৬) আবেরা – নামের অর্থ = ক্ষমতাশালী; উন্নতচরিত্র।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নাম ২০২৩

(৮৭) আদ্রিকা – নামের অর্থ = গগনচুম্বী সুউচ্চ গিরি শৃঙ্গের।
(৮৮) আদিলা – নামের অর্থ = সৎ, ন্যায়পরায়ণ, ন্যায়বিচারক।
(৮৯) আধিরা – নামের অর্থ = চন্দ্র।
(৯০) আদিলাহ – নামের অর্থ = শুধু।
(৯১) আনন্দময়ী – নামের অর্থ = সুখে পরিপূর্ণ, আনন্দদায়িনী।
(৯২) আদিলাহ, আদিলা, আদিলা – নামের অর্থ = সমান, ন্যায়পরায়ণ, সৎ।
(৯৩)

(৯৪) আদ্বিকা – নামের অর্থ = বিশ্ব, অনন্যা।
(৯৫) আদেলমিরা – নামের অর্থ = উৎকৃষ্ট।
(৯৬) আদ্রা – নামের অর্থ = ভার্জিন, বিউটি, বেদ, অদৃশ্য
ন্যায় বৃহৎ যে নারীর হৃদয়।
(৯৭) আদ্রিতা – নামের অর্থ = আরাধ্য।
(৯৮) আধিলা – নামের অর্থ = সততা, শুধু, ন্যায়পরায়ণ, বিচার।
(৯৯) আবেবা – নামের অর্থ = ফুল।
(১০০) আনআম – নামের অর্থ = পৃথিবীতে সমস্ত জীবন্ত জিনিস।
(১০১) আনফানি – নামের অর্থ = মর্যাদাপূর্ণ।
(১০২) আনউড – নামের অর্থ = প্রবল ইচ্ছাশালী, স্মার্ট, জনপ্রিয়।

(১০৩) আনফা – নামের অর্থ = আত্মমর্যাদা, মর্যাদা।
(১০৪) আনম – নামের অর্থ = আল্লাহর রহমত।
(১০৫) আনবারিন – নামের অর্থ = অ্যাম্বারগ্রিস এর।
(১০৬) আনবার – নামের অর্থ = সুগন্ধি, অ্যাম্বারগ্রিস।
(১০৭) আনফাস – নামের অর্থ = প্রফুল্লতা, আত্মা, শ্বাস।
(১০৮) আনমার – নামের অর্থ = চিতা।
(১০৯) আনবারা – নামের অর্থ = অ্যাম্বারগ্রিস, সুগন্ধি।
(১১০) আনসা – নামের অর্থ = বিউটি কুইন, স্বপ্নের দেবী।
(১১১) আনহার – নামের অর্থ = স্বর্গ তরঙ্গ, নদী।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুর ইসলামিক নামগুলোঃ

(১১২) আনমোল – নামের অর্থ = অমূল্য, মূল্যবান।
(১১৩) আনশি – নামের অর্থ = আল্লাহের দান, পুরো।
(১১৪) আনসরা – নামের অর্থ = সাহায্যকারী।
(১১৫) আনশা – নামের অর্থ = অংশ, আশা।
(১১৬) আব্রু – নামের অর্থ = খ্যাতি, সম্মান, মর্যাদা।
(১১৭) আনহা – নামের অর্থ = প্রেমের প্রতিনিধিত্ব, সুন্দর।
(১১৮) আনসাম – নামের অর্থ = নাসামের বহুবচন।
(১১৯) আনান – নামের অর্থ = মেঘ।
(১২০) আনস্রি – নামের অর্থ = বিখ্যাত, গৌরবময়, সুন্দর।

(১২১) আনাফা – নামের অর্থ = হেরনের অনুরূপ।
(১২২) আনা – নামের অর্থ = তরুণ, খাদ্যশস্য, সবচেয়ে।
(১২৩) আনাবা – নামের অর্থ = আল্লাহের কাছে ফিরে এলেন – পুণ্যবান হলেন।
(১২৪) আনাইস – নামের অর্থ = অনুগ্রহ; আনুকূল্য; বিশুদ্ধ।
(১২৫) আনারকলি – নামের অর্থ = বেদানার ফুল।
(১২৬) আনাত – নামের অর্থ = প্রতিক্রিয়া, উত্তর, সহনশীলতা।
(১২৭) আনাফাহ – নামের অর্থ = হেরনের অনুরূপ।
(১২৮) অনান – নামের অর্থ = মেঘ।
(১২৯) আনাশা – নামের অর্থ = অনন্য।

(১৩০) আনি ফাতিমা খাতুন – নামের অর্থ = তিনি একজন সাহিত্যিক মহিলা এবং কাস্তানিনিয়ায় একজন কবি ছিলেন।
(১৩১) আনাম – নামের অর্থ = আশীর্বাদ, ক্ষমতার সঙ্গে।
(১৩২) আনালিয়া – নামের অর্থ = স্প্যানিশ ভাষায় যার অর্থ হল দয়া।
(১৩৩) আনায়া – নামের অর্থ = সুরক্ষা, তত্ত্বাবধান।
(১৩৪) আনিজা – নামের অর্থ = সুখ এবং সবুজ উপত্যকা।
(১৩৫) আনালে – নামের অর্থ = অনুগ্রহ, আনুকূল্য, আনার অনুরূপ।

আ দিয়ে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ

(১৩৬) আনিকা – নামের অর্থ = অনুগ্রহ, অনুগ্রহ, শ্বর দয়ালু।
(১৩৭) আনিয়ার – নামের অর্থ = মেয়ে, তরুণী।
(১৩৮) আনি-ফাতিমা – নামের অর্থ = সাহিত্যিক কবি।
(১৩৯) আবেদাহ – নামের অর্থ = উপাসক।
(১৪০) আনিসা – নামের অর্থ = তরুণী, কন্যা।
(১৪১) আনিবা – নামের অর্থ = ফেরেশতা।
(১৪২) আনুম – নামের অর্থ = আল্লাহের আশীর্বাদ।
(১৪৩) আনিয়া – নামের অর্থ = আয়না।
(১৪৪) আনোখি – নামের অর্থ = অদ্বিতীয়া।
(১৪৫) আনিরা – নামের অর্থ = যুবতী মহিলা, মেয়ে।

(১৪৬) আনোয়ারা – নামের অর্থ = আলোর রশ্মি।
(১৪৭) আনিহা – নামের অর্থ = অনাগ্রহ, উদাসীন।
(১৪৮) আবের – নামের অর্থ = সুগন্ধি, সুগন্ধি।
(১৪৯) আনিসাহ – নামের অর্থ = উদার, অনুগত।
(১৫০) আবিদাত – নামের অর্থ = আল্লাহের উপাসক।
(১৫১) আনিসাহ, অনীসা – নামের অর্থ = ঘনিষ্ঠ, ঘনিষ্ঠ, ভালো বন্ধু।
(১৫২) আবেন – নামের অর্থ = জল, পরিষ্কার, স্পষ্টভাষী।

(১৫৩) আবাসাহ – নামের অর্থ = আল মাহদির কন্যা।
(১৫৪) আনেত্রা – নামের অর্থ = আল্লাহ দেখিয়েছেন, আল্লাহ দয়ালু ছিলেন।
(১৫৫) আবাবিল – নামের অর্থ = ঝাঁক।
(১৫৬) আন্না – নামের অর্থ = বর্তমান, করুণাময়।
(১৫৭) আফগা – নামের অর্থ = সুন্দর।
(১৫৮) আফজানা – নামের অর্থ = তলাবিশিষ্ট, কথাসাহিত্য।
(১৫৯) আপ্তি – নামের অর্থ = পূর্ণতা, সিদ্ধি।
(১৬০) আবসার – নামের অর্থ = সুইফট, চোখের দৃষ্টি, দৃষ্টি।
(১৬১) আফজা – নামের অর্থ = ভাগ্যবান।
(১৬২) আফকার – নামের অর্থ = বুদ্ধি চিন্তা, ফিকরের বহুবচন।

আ দিয়ে মেয়ে বাবুদের সুন্দর নামগুলোঃ

(১৬৩) আফতান – নামের অর্থ = আরো আকর্ষণীয়, মনোমুগ্ধকর।
(১৬৪) আফনা – নামের অর্থ = স্বর্গের গাছের শাখা।
(১৬৫) আফতাব – নামের অর্থ = সূর্য।
(১৬৬) আবীরা – নামের অর্থ = রঙ।
(১৬৭) আফদা – নামের অর্থ = সুন্দর।
(১৬৮) আফফানা – নামের অর্থ = পুণ্যময়, ক্ষমাশীল, শুদ্ধ।
(১৬৯) আফনাজ – নামের অর্থ = অসাধারণ; উপন্যাস; দ্রুততা।
(১৭০) আফরা – নামের অর্থ = সাদা, পৃথিবীর রঙ, সুখ।
(১৭১) আবলা – নামের অর্থ = নিখুঁতভাবে গঠিত, একটি বন্য গোলাপ।

(১৭২) আফনি – নামের অর্থ = মিষ্টি, চিরতরে।
(১৭৩) আফফ – নামের অর্থ = বিশুদ্ধ।
(১৭৪) আফরাহ – নামের অর্থ = সুখ।
(১৭৫) আফরিয়া – নামের অর্থ = খালি।
(১৭৬) আফরুজা – নামের অর্থ = চালাক।
(১৭৭) আফরেন – নামের অর্থ = খালি।
(১৭৮) আফশা – নামের অর্থ = সুন্দর, উজ্জ্বল।
(১৭৯) আফরোজা – নামের অর্থ = উজ্জ্বল।
(১৮০) আফলাক – নামের অর্থ = স্বর্গীয় দেহ।
(১৮১) আফলা – নামের অর্থ = অবতরণ, বুদ্ধিমান।

(১৮২) আফশানা – নামের অর্থ = কথাসাহিত্য।
(১৮৩) আফশা-ফেরদুস – নামের অর্থ = স্বর্গের সুখ।
(১৮৪) আফশান – নামের অর্থ = ছিটানো, চকচকে।
(১৮৫) আবাহনী – নামের অর্থ = সূচনা সঙ্গীত।
(১৮৬) আফশিন – নামের অর্থ = একজন জেনারেলের নাম।
(১৮৭) আফসারী – নামের অর্থ = সবচাইতে সুন্দর, ফেরেশতা।
(১৮৮) আফশীন – নামের অর্থ = তারার মতো উজ্জ্বল।

আ দিয়ে দুই অক্ষরের মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ ২০২৩

(১৮৯) আফসনা – নামের অর্থ = কল্পনা।
(১৯০) আফসা – নামের অর্থ = হযরত মোহাম্মদের (সাঃ) স্ত্রী।
(১৯১) আফসান – নামের অর্থ = আল্লাহের উপহার, সুন্দর, সেরা।
(১৯২) আফসুন – নামের অর্থ = বানান বা মুগ্ধতা; কবজ; বানান।
(১৯৩) আবরাজ – নামের অর্থ = সুন্দর চোখ দিয়ে।
(১৯৪) আফসাহান – নামের অর্থ = প্রকাশিত, সমাধান করা হয়েছে, আল্লাহের দান।
(১৯৫) আফসারা – নামের অর্থ = খালি।

(১৯৬) আফসাহ – নামের অর্থ = সর্বাধিক বাক্যবান / অভিব্যক্তিপূর্ণ।
(১৯৭) আফসিন – নামের অর্থ = তারার মতো জ্বলজ্বল করুন।
(১৯৮) আফানা – নামের অর্থ = পুণ্যময়, শুদ্ধ, ক্ষমাশীল।
(১৯৯) আফসিনা – নামের অর্থ = তারার মতো উজ্জ্বল।
(২০০) আবরা  – নামের অর্থ = জনতার মা, পাঠ।
(২০১) আফসীন – নামের অর্থ = তারার মতো উজ্জ্বল।
(২০২) আফিজেহ – নামের অর্থ = একটি দুল।
(২০৩) আফা – নামের অর্থ = ক্ষমাশীল, ক্ষমাশীল।

(২০৪) আফাফ – নামের অর্থ = সৎ, গুণী, শালীন, বিশুদ্ধ।
(২০৫) আফাম – নামের অর্থ = বন্ধুত্বপূর্ণ।
(২০৬) আফিকা – নামের অর্থ = জ্ঞান।
(২০৭) আফিয়াত – নামের অর্থ = সুস্বাস্থ্য, সহজ, আরাম।
(২০৮) আফিকাহ – নামের অর্থ = মহিমান্বিত; সৎ।
(২০৯) আফিজা – নামের অর্থ = যিনি কোরানের আবৃত্তি ।
(২১০) আফিরাত – নামের অর্থ = স্বর্গ।
(২১১) আফিন – নামের অর্থ = ক্ষমা।
(২১২)  আফিফা-মাসাররাত – নামের অর্থ = আল্লাহের কোণ।
(২১৩) আফিফা – নামের অর্থ = মেয়ে, সৎ, সৎ, ন্যায়পরায়ণ।
(২১৪) আফেনি – নামের অর্থ = স্বাস্থ্য।

(২১৫) আফিফাহ – নামের অর্থ = শুদ্ধ, বিশুদ্ধ।
(২১৬) আফিয়ানা – নামের অর্থ = সুস্থ।
(২১৭) আফিশা – নামের অর্থ = বেশ।
(২১৮) আফিয়াহ – নামের অর্থ = স্বাস্থ্য।
(২১৯) আফেরা – নামের অর্থ = ধুলো, গজেল।
(২২০) আফিরা – নামের অর্থ = মাটি বা ধুলো দিয়ে াকা।
(২২১) আফ্রিদা – নামের অর্থ = সৃষ্টি, উৎপাদিত।
(২২২) আবদাহ – নামের অর্থ = আল্লাহর উপাসক।
(২২৩) আফিসা – নামের অর্থ = উজ্জ্বল, শুভকামনা, স্বচ্ছ।

(২২৪) আফ্রা – নামের অর্থ = পৃথিবীর রঙ, তরুণ হরিণ।
(২২৫) আফুসাত – নামের অর্থ = প্রশংসনীয়, অনন্য, পরম।
(২২৬) আফ্রিজা – নামের অর্থ = খাঁটি সোনা; অগ্নিকুণ্ড।
(২২৭) আবদা – নামের অর্থ = অসাধারণ, মূল, সুন্দর।
(২২৮) আবরার – নামের অর্থ = বেশীরভাগ ধার্মিক, ন্যায়পরায়ণ।
(২২৯) আবদি – নামের অর্থ = আল্লাহর গোলাম, মহাসাগর।
(২৩০) আবদিয়া – নামের অর্থ = আল্লাহর আবরার – নামের অর্থ = বেশীরভাগ ধার্মিক, ন্যায়পরায়ণ।
(২৩১) আবকুরাহ – নামের অর্থ = জিনিয়াস।
(২৩২) আবলাজ – নামের অর্থ = উজ্জ্বল, সুন্দর, ফর্সা।

#আ অক্ষর দিয়ে মেয়ে শিশুদের আরো অনেক নাম সংগ্রহ করে এখানে যুক্ত করে দিতে পারতাম, কিন্তু আমি বাছাই করে মোটামুটি যে কয়টা ভালো সেগুলো দিলাম।
#পোস্টটি লিখতে আমার প্রায় ১২ ঘন্টা লেগেছে, তাই দয়াকরে কপি করলে ক্রেডিট দিবেন।

###ভিজিটর ভাই ও বোনরা এই পোস্টে যেসকল নাম আমি দিয়েছি অর্থসহ এগুলো আমি ইন্টারনেট থেকেই দেখে লিখেছি নিজের হাতে, নিজেরমতো করে সাজিয়ে গুছিয়ে একটা একটা করে; আমি একারণেই বলতেছি যাতে আপনারা এখানের কোনো নামের অর্থ দেখেই তাড়াহুড়া করে নামটি রাখার সিদ্ধান্তে না পৌছান। আমার ইন্টারনেট থেকে খুজেঁ লেখায় ভুল ভ্রান্তি হতেই পারে কিন্তু আপনি কোন নাম নির্বাচন করার পরে সেটি সার্চ ইন্জিনে অথবা কাজের মসজিদের অভিজ্ঞ হুজুরের সাথে পরামর্শ করুন নামটি নিয়ে তারপরে আপনার শিশুর জন্য রাখুন।