June 20, 2024

হু মুভড মাই চিজ? অনুবাদ বই | Who moved my cheese bangla PDF Download – purepdfbook

who-moved-my-cheese-pdf

টাইম মেশিন বই, ম্যানেজমেন্ট বই pdf, টাইম ম্যানেজমেন্ট বই রিভিউ, থ্রিলার বই pdf, হস্তরেখা বিষয়ক বই pdf, প্রয়োজনীয় বই pdf, সেরা অনুবাদ বই, টাইম মেশিন pdf, বস ম্যানেজমেন্ট pdf download, The power of now বাংলা অনুবাদ pdf, ম্যানেজমেন্ট বই pdf, ফারাও উইলবার স্মিথ, লাইফ অব পাই pdf, দ্য আলকেমিস্ট সিক্রেট pdf download, গোয়েন্দা বিষয়ক বই pdf, শাহেদ জামান pdf, তারা পরিচিতি pdf, উইলবার স্মিথ pdf, দ্য সাইলেন্ট পেশেন্ট অনুবাদ pdf

হু মুভড মাই চিজ? বই রিভিউঃ

Dr. Spencer Johnson এর রচিত “Who moved my cheese?” জীবনের কঠিন সত্যের গভীর উপলব্ধিমূলক রচনা। গল্পটি চারটি বিশেষ চরিত্র নিয়ে গঠিত যারা একটি গোলকধাঁধায় বাস করে এবং সবসময় চিজ বা পনিরের সন্ধানে থাকে যা তাদের পুষ্টি দান করে এবং তাদের খুশি রাখে। এখানে চিজ বা পনির এবং গোলকধাঁধা দুইটাই উপমা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে যেখানে চিজ বা পনির প্রতিনিধিত্ব করে আমাদের জীবনের সেইসব জিনিসকে যা আমাদের সুখী করে, যা অর্জন করতে আমরা মরিয়া হয়ে যাই।

তা হতে পারে কোনো ভালো চাকরী, কিংবা কোনো ভালোবাসার মানুষ, অথবা টাকা পয়সা ধন দৌলত। আর গোলকধাঁধা হলো সেই জায়গা যেখানে আমরা বসবাস করি বা আমাদের চারপাশের পরিবেশ যেখানে আমরা এই সুখের সন্ধান করি।
সম্পূর্ণ গল্পটি চারটি চরিত্রকে ঘিরে যাদের মধ্যে রয়েছে দুইটা ইদুর “Sniff” আর “Scurry” আর দুইজন বেঁটে মানুষ “Hem” আর “Haw” “Sniff” সর্বদা দ্রুত পরিবর্তন এর পিছনে ছুটে।

সে তার সুখের সন্ধান করতে খুব সহজেই পরিবর্তনকে মেনে নেয়। তাই সে তার জীবনের সুখের সন্ধানের পথে সুখী থাকে কারন সে নতুনত্ব খুজে এবং মানিয়ে নিতে পারে।
Scurry” সর্বদা একশন নেয়ার জন্য প্রস্তুত থাকে। সে যেকোনো বিপদ মোকাবেলা করতে প্রস্তুত।
“Hem” সবসময় পরিবর্তনকে ভয় পায়, সে কোনো পরিবর্তনকে মেনে নেয় না। সে নতুন কিছুকে গ্রহণ করে না। সে ভয় পায় নতুন কোনো পরিবর্তন তার জীবনে ধ্বংস ডেকে আনবে। তাই সে প্রয়োজনেও কোনো পরিবর্তন আনে না যা তার জীবনে ধ্বংস ডেকে আনে।

“Haw” সময় ও প্রয়োজনে পরিবর্তন আনতে সর্বদা প্রস্তুত। সে যখন বুঝে পরিবর্তন তার জীবনকে আরো সুন্দর করতে পারে সে হাসিমুখেই সে পরিবর্তন মেনে নেয়ার মানসিকতা রাখে।

গল্পটি সহজ ভাষায় আমাদের জীবনের কঠিন সত্যকে তুলে ধরেছে। আমরা সর্বদা জীবনে সুখের সন্ধানে ছুটি, গোলকধাঁধায় হারিয়ে যাই, কখনো কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে পারি, কখনও ব্যার্থতায় পর্যবাসিত হয়ে পরি। গল্পটি পড়ে আমরা উপলব্ধি করতে পারি এই চার চরিত্রের মধ্যে কোন চরিত্রের সাথে আমাদের মিল আছে, আমাদের জীবনের ভূলটা কোথায়, কেন আমরা সুখের সন্ধানে ছুটতে গিয়ে আরো অসুখী হয়ে পড়ি।

গল্পটির কয়েকটি প্রিয় উক্তিঃ

1. The more important your cheese is to you, The more you want to hold on to it.

2. When you stop being afraid, You feel good.

3. If you do not change, You can become extinct.

4. The quicker you let go of old cheese, The sooner you find new cheese.

জীবনে ভয় পেয়ে থেমে থাকার চেয়ে ভালো চেষ্টা করে চলা। হয়তো আমরা ভয় পাবো, মুখ থুবড়ে পড়বো কিন্তু দিনশেষে আবার সাফল্যের পথ খুজে পাবো। কেন আমরা নতুন কিছুকে ভয় পাই? কেন আমরা মেনে নিতে পারি না কোনো নতুন পরিবেশ, নতুন কর্মক্ষেত্র, কোনো নতুন চেষ্টা।
বইটি পড়ে আমরা একটা গভীর উপলব্ধি করতে পারবো আমরা জীবনের কোন পর্যায়ে আছি তাই বইটি পড়া আবশ্যক।

আসুন একটা গল্প শুনাই, ভালো করে পড়বেন শেষে কিন্তু প্রশ্ন করবো-
গল্পটি ২ টি ইঁদুর এবং মানুষের মত দেখতে ২ জন খর্বাকৃতির গল্প। ২ জন ইঁদুরের নাম স্নিফ এবং স্কারি এবং বাকি ২ জনের নাম হ এবং হেম ।

এরা চারজনই কোন একটা গোলকধাঁধার মধ্যে জীবন কাটায়। প্রতিদিন সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠেই গোলকধাঁধার মধ্যে দৌঁড়ে চিজ/ পনির খুঁজতে থাকে এবং পেলে তা দিয়ে জীবন ধারণ করে। তারা পনির খুঁজে পেতে অনেক কষ্ট করতো। সকালে ঘুম থেকে উঠে হ এবং হেম জগিং স্যুট এবং জুতা পরে নিত যাতে তাদের দৌঁড়ে পনির খুজঁতে কোন অসুবিধা না হয়।

কিন্তু একদিন!!
একদিন তারা ৪ জনই চিজ স্টেশন সি তে বিশাল পনিরের মজুদ পেলো। এমন চিজ দেখে তারা পাগল প্রায়। তাঁরা তাদের জুতা ছুড়ে ফেলে সেখানেই জীবন যাপন শুরু করলো। কোন চিন্তা ভাবনা ছাড়াই তাঁরা ধরে নিল তাদের বাকি জীবন এভাবেই চলে যাবে।
হঠাৎ একদিন!! তাঁরা চিজ স্টেশন সি তে গিয়ে দেখলো সেখানে কোন পনির নেই।

এটা দেখে হ এবং হেম পাগল এর মত অবস্থা। তাঁরা চিৎকার করে উঠলো, “না এমন হতে পারে না। এটা অন্যায়। আমাদের সাথে এটা হতে পারে না। ”
অন্যদিকে স্নিফ এবং স্কারি এটা দেখে তাঁরা অন্য দিকে পনির খুজতে শুরু করলো। একদিন তাঁরা পেয়েও গেল চিজ স্টেশন এন এর দেখা যা চিজ স্টেশন সি এর চেয়ে বেশি।

হ এবং হেম তাদের দুঃখ ভুলতে পারলো না। তাঁরা দিনের পর দিন অপেক্ষা করতে থাকলো। এদিকে ক্ষুধার্থ থাকায় এবং ডিপ্রেশনে তাদের শরীর খারাপ হতে থাকলো। তাঁরা ভয় পেতে থাকলো অন্য কোথাও গেলে যদি তাঁরা হারিয়ে যায়, তাঁরা যদি ভালো কিছু করতে না পারে? অনাগত ভবিষ্যৎ কেমন হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তায় তাঁরা তা গ্রহণ করতে রাজি ছিল না।

একদিন হ চাইলো নতুন পনিরের খোঁজ করতে কিন্তু হেম কোনভাবেই তা হতে দিল না। বরং হ এর উপর রাগ দেখানো শুরু করলো।
একদিন হ এর রাগ উপেক্ষা করে হেম আবার পনির খোঁজ করতে বের হল। অনেক কষ্টের পর সেও চিজ স্টেশন এন এর খোঁজ পেলো। এরমধ্যে অনেকবার হ কে রাজি করানোর ট্রাই করেও পারলো না।

এবার আপনাদের কাছে প্রশ্ন-

১) আপনি পরিবর্তন ভয় পান?
২) সবসময় কমফোর্ট জোনে থাকতে চান?
৩) অন্য পরিবেশে মানিয়ে নিতে পারেন না বা চান না?
৩) আপনার কি খারাপ সময় নিয়ে কোন চিন্তা থাকে না?

সবগুলো প্রশ্নের উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে বইটি আপনার পড়া উচিৎ।
হ্যাঁ, আমি “হু মুভড মাই চিজ” বইয়ের কথা বলছি। আপনি সামনে খুব বড় সমস্যায় পড়তে যাচ্ছেন কিংবা সমস্যার ভিতর দিয়ে যাচ্ছেন। এই বইটি/ গল্পটি মনোযোগ দিয়ে পড়লে আপনি বুঝতে পারবেন, আমাদের কেমন মানসিকতা নিয়ে চলা উচিৎ বা কী করা উচিৎ?

পাঠ প্রতিক্রিয়াঃ

এই বই পড়লেই জীবনে বিশাল কিছু হয়ে যাবে এমন নয়। আমরা প্রতিনিয়ত জীবনের বাঁকে বাঁকে একেক রকম অবস্থা ফেস করি। ঘাবড়ে যাই, ভেঙ্গে পড়ি, উঠে দাড়াই। এই বইটি পড়লে অযুহাত / ভেঙ্গে না পড়ে ঘুরে দাঁড়ানোর অনেক গুলো কারণ চোখে পড়তে শুরু করবে।

দুটো লাইন লিখতে চাই-

অনেক আছে কারণ, মন খারাপের
চাওয়া পাওয়া দাবি ছিল এক মলাটের…
সবই যদি বদলে যায়, জীবন কি যাবে থেমে??
না!! জীবন আমার , পথ আমার, নাও শুনে…
অন্য অধ্যায় করবো শুরু এক জীবনে।

   বইয়ের বিবরণ

বইয়ের নামঃ হু মুভড মাই চিজ?
লেখকঃ স্পেনসার জনসন
অনুবাদকঃ মোহাম্মদ আবদুল লতিফ
পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৭১ টি।
ক্যাটেগরিঃ অনুবাদ বই,  আত্ম-উন্নয়ন, মেডিটেশন
পিডিএফ সাইজঃ ১১ মেগাবাইট প্রায়।
রকমারি থেকে ক্রয় করার লিঙ্কঃ
হু মুভড মাই চিজ? বই

Download Now

#বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত। #লেখকের ক্ষতি আমাদের কাম্য নয়,  বইটির হার্ড কপি কেনার সমর্থ থাকলে বইটির হার্ড কপি কিনে পড়ুন।
#(আমাদের ব্লগের সমস্ত বইগুলো ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত। লেখকের বা প্রকাশনীর যদি কোনো বইয়ের PDF নিয়ে অভিযোগ থাকে তাহলে দয়াকরে জানান, আমাদেরকে জানানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে PDF টি রিমুভ করে দিবো।) ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ পোস্ট টি পড়ার জন্য।