February 27, 2024

সিগারেট খাওয়া কি হারাম? | স্পষ্ট দলীল শরীয়তে আছে কিনা? -বিস্তারিত জানুন : purepdfbook

সিগারেট খাওয়ার পিক

সিগারেট খাওয়ার অপকারিতা & উপকারিতা, সিগারেট খাওয়া পিক, ছেলেদের সিগারেট খাওয়ার ছবি, সিগারেট খাওয়ার পিক, ছেলেদের সিগারেট খাওয়ার পিক, সিগারেট খাওয়ার নিয়ম, কোন সিগারেট খাওয়া ভালো

ইসলামী শরিয়তের বিধানে সব কিছুর স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা বা দলিল থাকেনা, কিন্তু শরিয়তে এমন কিছু স্পষ্ট উক্তি থাকে যা দ্বারা ইসলামী বড় বড় জ্ঞানীগন নির্নয় করেন, দ্বারা বলা যায় কোনটা হালাল আর কোনটা হারাম।

যে সকল নীতির উপর ভিত্তি করে সিগারেট বা বিড়িকে হারাম বলে বিবেচনা করা হয়েছে সেগুলো হলোঃ

১। সিগারেট বা বিড়িতে রয়েছে (অনর্থক অর্থ অপচয়)  আর অপচয় করা ইসলমে হারাম, এটি আমরা সকলেই জানি।

আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ নিশ্চয় অপব্যয়কারীরা শয়তানের ভাই। শয়তান স্বীয় পালনকর্তার প্রতি অতিশয় অকৃতজ্ঞ। (সূরা বনী ইসরাইল-২৭)

২। সিগারেট বা বিড়িতে (স্বাস্থ্যগত ক্ষতি)।  যেসব খাবার মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর সেই খাদ্যগুলো ইসলামে হারাম।
মহান আল্লাহ্ তায়ালা বলেনঃ তােমরা নিজেদেরকে হত্যা করাে না। (সুরা নিসা- ২৯)

৩। সিগারেট বা বিড়ি বেশী পরিমানে সেবন করলে জ্ঞানশূন্যতা আসার সম্ভাবনা অনেক বেশীই থাকে। আর ইসলামে যেসব খাদ্য পান করলে জ্ঞানশূন্যতা হয় সেগুলো হারাম।

৪। সিগারেট বা বিড়িতে রয়েছে দুর্গন্ধ, এটি পান করার পরে দুর্গন্ধে অন্য ভাই বোনেরা কষ্ট পায়। যে খাবারে দুর্গন্ধ রয়েছে তা পবিত্র নয়, ইসলামে অপবিত্র জিনিস খাওয়া হারাম।

আল্লাহ বলেনঃ তােমাদের জন্য পবিত্র বস্তু হালাল করা হয়েছে, আর অপবিত্র বস্তু হারাম করা হয়েছে। (সূরা আরাফ-১৫৭)

   আল্লাহ্ তায়ালা বলেনঃ যারা বিনা অপরাধে মুমিন পুরুষ ও মুমিন নারীদেরকে কষ্ট দেয়, তারা মিথ্যা অপবাদ ও প্রকাশ্য পাপের বােঝা বহন করে। (সুরা আল আহযাব- ৫৮)

ভুলত্রুটি ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।