February 28, 2024

সকল সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহ | পুরুষ- মহিলা সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহ (2023)

আ দিয়ে- স দিয়ে- র দিয়ে- ন দিয়ে -ফ দিয়ে- ম দিয়ে -শ দিয়ে -ব দিয়ে – ই দিয়ে- জ দিয়ে- ল দিয়ে- ত দিয়ে- হ দিয়ে, সব অক্ষর দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহ।

ম দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) মাজমা ইবনে জারিয়া
(২) মাআন ইবনে আদি
(৩) মাজাশি ইবনে মাসউদ
(৪) মাসলামা ইবনে মুখাল্লাদ
(৫) মারওয়ান ইবনুল হাকাম
(৬) মিকদাদ ইবনে আমর
(৭) মারসাদ ইবনে আবু মারসাদ আলগানাবি
(৮) মুগীরা ইবনে নাওফাল
(৯) মালিক ইবনে হুয়াইরিস

(১০) মিসতাহ ইবনে উসাসা
(১১) মাহজা ইবনে সালেহ
(১২) মিহরায ইবনে নাদলা
(১৩) মায়ায ইবনে আফরা
(১৪) মুগীরা ইবনে শুবা
(১৫) মুয়াজ ইবনে জাবাল
(১৬) মুসআব ইবনে উমাইর
(১৭) মিকদাদ ইবনে আসওয়াদ
(১৮) মুনযির ইবনে আমর
(১৯) মিহজান ইবনুল আদরা

সব অক্ষর দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহ

(২০) মুহাইয়াসা ইবনে মাসউদ
(২১) মুজায্‌যার ইবনে যিয়াদ
(২২) মুবাশির ইবনে আবদুল মুনযির
(২৩) মুহাম্মাদ ইবনে আবি বকর
(২৪) মুনজির ইবনে মুহাম্মাদ আল আনসারী
(২৫) মুহাম্মদ ইবনে মাসলামা
(২৬) মুয়াইকিব ইবনে আবু ফাতিমা

 র দিয়ে সাহাবীদের নামের লিস্ট অর্থসহঃ

১। রাফি ইবনে ইয়াজিদ – নামের অর্থ = তিনি অগ্রগতি করেন,  তিনি ক্ষমতা ও সম্পদে বৃদ্ধি করেন, তিনি আরও সুখী হন, তিনি পুণ্য লাভ করেন।
২। রিফায়া ইবনে আবদুল মুনযির – নামের অর্থ = সতর্ককারী, অগ্রদূত, সুসংবাদের উদ্রেককারী।
৩। রাফে ইবনে খাদিজ – নামের অর্থ = (এই নামটির অর্থ খুঁজে পেলাম না ইন্টারনেটে, আপনি জানতে চাইলে অভিজ্ঞ হুজুরের কাছে জিঙ্গেস করুন)

 ফ দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহঃ

১। ফাতিমা – নামের অর্থ = সদ্য দুধ ছাড়ানো শিশু।
২। ফুযালা ইবনে উবাইদ – নামের অর্থ = বান্দা, (যেমন আল্লাহর বান্দা।)
৩। ফাদল ইবনে আব্বাস – নামের অর্থ = সিংহ, শক্তিশালী।
৪। ফাইরুজ আল দাইলামি – নামের অর্থ = সমৃদ্ধশীলা।

ন দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকা অর্থসহঃ

১। নুয়াইম ইবনে মাসুদ – নামের অর্থ = সফল, খুশি, সুখী।
২। নাওফিল ইবনে হারিস – নামের অর্থ = আগ্রহী, আকাঙ্ক্ষী।
৩। নুমান ইবনে বশির – নামের অর্থ = হার্বিংগার অফ গুড থিংস; যিনি সুসংবাদ দেন; সুশিক্ষিত; বুদ্ধিমান।
৪। নুমান ইবনে আজলান – নামের অর্থ = রাজা, সিংহ।
৫। নুমান ইবনে মুকাররিন – নামের অর্থ = আল্লাহর সমস্ত নেয়ামত সহ পুরুষ।
৬। নুয়াইম ইবনে আবদুল্লাহ – নামের অর্থ = আল্লাহর বান্দা।
৭। নুসাইবা বিনতে কাব – নামের অর্থ = ভাগ্যবতী।
৮। নুয়াইমান ইবনুল হারিস – নামের অর্থ = অতি সহজকারী।

জ দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ

১। জাফর ইবনে আবি তালিব – নামের অর্থ = (তালিব – হচ্ছে শুভেচ্ছা, প্রেরক (সত্যের), ছাত্র, প্রেমিক, সত্যের সন্ধানকারী।)
২। জাবান আল কুর্দি – নামের অর্থ = (যবান অর্থ, জিহ্বা, ভাষা।)
৩। জাবির ইবনে আতিক – নামের অর্থ = (আতিক – পবিত্র, উদার, মহৎ, মহানুভব।)
৪। জাবির ইবনে আবদুল্লাহ – নামের অর্থ = (আব্দুল্লাহ – আল্লাহর দাস, আল্লাহর প্রিয় বান্দা।)
৫। জারির ইবনে আবদুল্লাহ আল বাজালী – নামের অর্থ = (জারির -একজন যে টানতে পারে, যে তুলতে পারে।)
৬। জায়েদ ইবনুল খাত্তাব – নামের অর্থ = (খাত্তাব – সুবক্তা)
৭। জুবাইর ইবনে মুতইম – নামের অর্থ = (জুবাইর- বুদ্ধিমান)
৮। জিবর ইবনে উতাইক – নামের অর্থ = (উতাইক – উদারতা, ধার্মিকতা, পুণ্য।)
৯। জুলাইবিব – নামের অর্থ = (জুলাইবিব – সাহসী শহীদ)

ল দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহঃ

১। লাবিদ – নামের অর্থ = একজন সঙ্গী, একজন সাথী।
২। লায়লা বিনতে আল-মিনহাল – নামের অর্থ = (মিনহাল- উদার, সম্মানিত।)

স দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহঃ

১। সাঈদ ইবনে যায়িদ – নামের অর্থ = (যায়িদ- ভাগ্যবান, ধৈর্য।)
২। সাওবান ইবনে নাজদাহ – নামের অর্থ = (সাওবান – সুভাষ, সুস্বাস্থ্য, স্বাস্থবান।)
৩। সাদ ইবনে খাইসামা – নামের অর্থ =
৪। সাদ ইবনে মুয়াজ – নামের অর্থ = (মুয়াজ – অত্যন্ত মনোযোগী।)
৫। সাদ ইবনে উবাদা – নামের অর্থ = (উবাদা – সৃষ্টিকর্তার একনিষ্ঠ উপাসক।)
৬। সাঈদ ইবনে আমির আল জুমাহি – নামের অর্থ = নেতা, অগ্রনী, দলপতি।
৭। সাইদ ইবনুল আস – নামের অর্থ = (সাইদ – নেতা, দলপতি)

৮। সাদ ইবনে যায়িদ আশহালি – নামের অর্থ =
৯। মোঃ সুলাইমান সাহাবী – নামের অর্থ = শান্তিপূর্ণ,শান্তিপ্রিয়।
১০। সাদ ইবনে হাবতা – নামের অর্থ =
১১। সাদ ইবনে আবি ওয়াক্কাস – নামের অর্থ =
১২। সাফওয়ান ইবনে উমাইয়া – নামের অর্থ = (সাফওয়ান – শুদ্ধ, পরিষ্কার, উজ্জ্বল।)
১৩। সাদ ইবনে রাবি – নামের অর্থ = (রাবি – বর্ণনাকারী ও উদ্ধৃতকারী।)
১৪। সাফিয়াহ বিনতে আবদুল মুত্তালিব – নামের অর্থ =
১৫। সাফিয়া বিনতে রাবিয়া – নামের অর্থ = (সাফিয়া – খাঁটি, পুণ্যবান, বিশুদ্ধ।)

১৬। সাবিত ইবনে দাহ্‌দাহ – নামের অর্থ =
স দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহঃ
১৭। সাবিত ইবনে ওয়াকশ – নামের অর্থ =
১৮। সাবিত ইবনে কায়স – নামের অর্থ = (কায়েস – দুরন্ত মানব, চটপটে, ফেরিঘাট, পারঘাট, জেটি।)
১৯। সালমা ইবনে সালামা – নামের অর্থ =
২০। সালমান আল ফারিসী – নামের অর্থ =

২১। সামুরা ইবনে জুন্দুর – নামের অর্থ = (সামুরা – সৃ, বন্ধুত্বপূর্ণ, গুরুতর, সক্রিয়, অস্থির)
২২। সালমান ইবনে রাবিয়া – নামের অর্থ = (রাবিয়া – উপযুক্ত, সক্রিয়, মনোযোগী, গুরুতর, আনন্দদায়ক)
২৩। সালামা ইবনুল আকওয়া – নামের অর্থ = (আকওয়া- সবচেয়ে শক্তিশালী)
২৪। সালামা ইবনে হিশাম – নামের অর্থ = (হিশাম – মহৎ, করুণাময়, সম্মানিত)
২৫। সালামা আবু হাশিম – নামের অর্থ = (হাশিম- চূর্ণকারী, অনিষ্টের সাহসী ধ্বংসকারী।)

২৬। সাহল ইবনে সাদ – নামের অর্থ = (সাদ – সৌভাগ্য, ভাগ্যবান।)
২৭। সালিম মাওলা আবু হুজাইফা – নামের অর্থ = নবীর একজন সহচর।
২৮। সাহল ইবনে হান্‌যালিয়া – নামের অর্থ =
২৯। সুরাকা ইবনে মালিক – নামের অর্থ = (মালিক /বিশেষ্য পদ/ প্রভু, কর্তা, অধিকারী, স্বত্বাধিকারী।)
৩০। সাহল ইবনে হানিফ – নামের অর্থ = (হানিফ- হচ্ছে ধর্মপ্রাণ বিশ্বাসী, ধর্মপ্রাণ মুসলমান, একশ্বেরবাদী।)
৩১। সায়িব ইবনে খাল্লাদ – নামের অর্থ = (সায়িব= সৃষ্টিকর্তার অনুগত হয়ে ফিরে আসা, সৃষ্টিকর্তার কাছে অনুতপ্ত হওয়া।)

৩২। সুহাইল ইবনে আমর – নামের অর্থ =  উজ্জ্বল তারকাবিশেষ জীবন।
৩৩। সুহাইব ইবনে সিনান আর রুমি – নামের অর্থ = (রুমি নামের অর্থ – সৌন্দর্য, মাধুর্য, লাবণ্য, সুন্দরতা, প্রবাহ, রত্ন পাথর, দূরে সব সমস্যা।)

আ দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) আওস ইবনে খালিদ
(২) আইয ইবনে সাঈদ
(৩) আইযুল্লাহ ইবনে উবাইদুল্লাহ
(৪) আওস ইবনে জুবায়ের
(৫) আকিল ইবনে আবি তালিব
(৬) আবদুর রহমান ইবনে আবু বকর
(৭) আবদুল্লাহ ইবনে জাফর
(৮) আবদুর রহমান ইবনে হারিস

(৯) আবদুল্লাহ ইবনে যায়িদ
( ১০) আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস
(১১ ) আইয ইবনে মাইস
(১২ ) আউস ইবনে খাওলা
(১৩ ) আইয়াশ ইবনে আবি রাবিয়া
(১৪ ) আইয ইবনে আমর
(১৫ ) আওস ইবনে মিয়ার
(১৬ ) আওস ইবনে সাবিত
(১৭ ) আওন ইবনে মালিক
(১৮ ) আওস ইবনে আস সামিত

(১৯ ) আওস ইবনে খালিদ ইবনে কুরত
(২০ ) আদ্দাস
(২১ ) আওস ইবনে সালাবা
(২২ ) আরকাম ইবনে আবিল আরকাম
(২৩ ) আত্তাব ইবন উসাইদ
(২৪ ) আনাস ইবনে নাদার
(২৫ ) আবদ-ইয়া-লাইল ইবনে আমর
(২৬ ) আদি ইবনে আয যাগ‌বা
(২৭ ) আনাস ইবনে মালিক

(২৮ ) আবদুর রহমান ইবনে আউফ
(২৯ ) আবদুল্লাহ ইবনে আবু বকর
(৩০ ) আবদুল্লাহ ইবনে আতিক
(৩১ ) আবদুর রহমান ইবনে শিব‌ল
(৩২ ) আব্দুল্লাহ ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে উবাই
(৩৩ ) আব্দুল্লাহ ইবনে আবি আওফা

(৩৪ ) আবদুল্লাহ ইবনে উবাই
(৩৫ ) আবদুল্লাহ ইবনে’ আমর ইবনুল আস
(৩৬ ) আবদুল্লাহ ইবনে ইয়াযিদ খাতমি
(৩৭ ) আবদুল্লাহ ইবনে উম্মে মাকতুম
(৩৮ ) আবদুল্লাহ ইবনে জাহাশ
(৩৯ ) আবদুল্লাহ ইবনে উনাইস জুহানি
(৪০ ) আবদুল্লাহ ইবনে উমর
(৪১ ) আবদুল্লাহ ইবনে মাখরামা
(৪২ ) আবদুল্লাহ ইবনে মাজউন

(৪৩ ) আবদুল্লাহ ইবনুল জুবায়ের
(৪৪ ) আব্দুল্লাহ ইবনে জুবায়ের আনসারী
(৪৫ ) আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ
(৪৬ ) আবদুল্লাহ ইবনে তারিক
(৪৭ ) আবদুল্লাহ ইবনে যায়িদ ইবন আসিম
(৪৮ ) আবদুল্লাহ ইবনে রাওয়াহা
(৪৯ ) আব্দুল্লাহ বিন তারিক
(৫০ ) আবদুল্লাহ ইবনে সালামা
(৫১ ) আবদুল্লাহ ইবনে সুহাইল

কুরআনে বর্ণিত সাহাবীদের নামের লিস্টঃ
(৫২ ) আব্বাদ ইবনে বিশর
(৫৩ ) আবদুল্লাহ ইবনে সালাবা
(৫৪ ) আবদুল্লাহ ইবনে হুজাফা আস সাহমী
(৫৫ ) আবদুল্লাহ ইবনে সালাম
(৫৬ ) আব্বাস ইবনে উবাদা
(৫৭ ) আব্বাস ইবনে মিরদাস
(৫৮ ) আম্মারা ইবনে হাযম
(৫৯ ) আবান ইবনে সাঈদ ইবনুল আস
(৬০ ) আব্বাস ইবনে আব্দুল মুত্তালিব

(৬১ ) আবু আমর হাফস ইবনে মুগীরা
(৬২ ) আবু আহমাদ ইবনে জাহাশ
(৬৩ ) আম্মার ইবনে ইয়াসির
(৬৪ ) আবু আইয়ুব আনসারি
(৬৫ ) আবু উবাইদা ইবনুল জাররাহ
(৬৬ ) আবু কাতাদাহ আল আনসারী
(৬৭ ) আবু উমামাহ আল-বাহিলি
(৬৮ ) আবু কাতাদাহ ইবনে রাবী

(৬৯ ) আবু বশির
(৭০ ) আবু দারদা
(৭১ ) আবু রাফি
(৭২ ) আবু বারযাহ আল আসলামি
(৭৩ ) আবু বকর ইবনে আবি কুহাফা
(৭৪ ) আবু বুরদা ইবনে নাইয়ার
(৭৫ ) আবু তালহা আনসারী

(৭৬ ) আবু দুজানা সিমাক বিন খারাসা
(৭৭ ) আবু মাসুদ আল-আনসারী
(৭৮ ) আবু সুফিয়ান ইবনুল হারিস
(৭৯ ) আবু সুফিয়ান ইবনে হার্ব
(৮০ ) আবু মূসা আল আশয়ারি
(৮১ ) আবু যার আল-গিফারী
(৮২ ) আবুল আস ইবনে রাবি
(৮৩ ) আবু সালামা ইবনে আবদিল আসাদ

(৮৪ ) আবু হাজাল মুসলিম ইবনে আওসাজা
(৮৫ ) আবু সায়িদ আল-খুদরী
(৮৬ ) আবু হুজাইফা ইবনে উতবা
(৮৭ ) আবু হুরাইরা আল আদ-দাওসি
(৮৮ ) আমর ইবনে মুয়াজ
(৮৯ ) আমর ইবনুল আস
(৯০ ) আমর ইবনে উমাইয়া
(৯১ ) আমর ইবনে আবাসা
(৯২ ) আমর ইবনে হাযম
(৯৩ ) আমির ইবন রাবীয়া

(৯৪ ) আমর ইবনে সাঈদ ইবনুল আস
(৯৫ ) আমির ইবনে ফুহাইরা
(৯৬ ) আমের ইবনে আবুল বুকায়র
(৯৭ ) আমির ইবনে ইয়াযিদ
(৯৮ ) আম্মারা ইবনে হাযম
(৯৯ ) আলী ইবনে আবি তালিব
(১০০ ) আম্মার ইবনে ইয়াসির
(১০১ ) আম্মারা ইবনে ইয়াযিদ
(১০২ ) আসমা বিনতে আবি বকর

(১০৩ ) আল-বারা’ ইবনে আযিব
(১০৪ ) আল বারা ইবনে মালিক
(১০৫ ) আহনাফ ইবনে কায়িস
(১০৬ ) আল বারা বিন মারুর বিন শাখার
(১০৭ ) আয়িশা বিনতে আবি বকর
(১০৮ ) আসিম ইবনে আদি
(১০৯ ) আসিম ইবনে সাবিত
(১১০ ) আহসান ইবনে সাবিত

হ দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) হামজা ইবনে আবদুল মুত্তালিব = (আব্দুল মুত্তালিব নামের অর্থ হচ্ছে, আল্লাহর উপদেষ্টা ও সঙ্গী।)
(২) হামনা বিনতে জাহাশ = (জাহশ নামের অর্থ হচ্ছে, নবী মুহাম্মদের সঙ্গী)
(৩) হালিমা বিনতে আবি যুয়ায়েব (হালিমা সাদিয়া) = (হালিমা নামের অর্থ হচ্ছে, ধৈর্যশীল, মৃদু, বিনয়ী এবং উদার।)
(৪) হাকিম ইবনে হিযাম = (হাকিম নামের অর্থ হলো জ্ঞানী, বিচক্ষণ।)
(৫) হাজ্জাজ ইবনে ইলাত = (হাজ্জাজ  নামের অর্থ প্রমাণকারী)
(৬) হাবিব ইবনে মাসলামা  = (হাবিব নামের অর্থ হচ্ছে পছন্দ, অত্যন্ত প্রিয়, প্রেমিকা, প্রেমিক।)
(৭) হারিস ইবনে হিশাম  = (হারিছ নামের অর্থ হচ্ছে আগ্রহী, আকাঙ্ক্ষী।)
(৮) হাতিব ইবনে আমর = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৯) হাতিব ইবনে আবি বালতায়া  = (হাতিব নামের অর্থ হচ্ছে, একজন ব্যক্তি যিনি কাঠ সংগ্রহ করেন।)

(১০) হাসান ইবনে আলী = (আলী নামের অর্থ উন্নত। আবার, ধর্মীয় ও বাংলা অভিধান ভেদে আলী নামের অন্য একটি অর্থ হলো সম্ভ্রান্ত মুসলমানের পদবী।)
(১১) হিন্দ বিনতে উতবা = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(১২) হানজালা ইবনে আবি আমির = (আমির নামের আরবি অর্থ নেতা, অগ্রণী, দলপতি।)
(১৩) হাসসান ইবনে সাবিত = (সাবিত শব্দটি আরবি পরিভাষা থেকে এসেছে। সাবিত নামের আভিধানিক অর্থ হলোঃ স্থিতিশীল এবং অদম্য।)
(১৪) হিলাল ইবনে উমাইয়া = (উমাইয়া নামের অর্থ হলোঃ উমাইয়া একটি আরব্য গোত্রের নাম। উমাইয়া শব্দটি আমাহ শব্দের ক্ষুদ্রত্ববাচক বিশেষ্য। আর আরবী আমাহ বা আমাতুন অর্থ দাসী, বাদী। সুতরাং উমাইয়া শব্দের আভিধানিক অর্থ ছোট দাসী।)
(১৫) হুবায়রাহ ইবনে সাবাল = (সাবাল নামের অর্থ সফল বা বিজয়ী নির্দিষ্ট করে)
(১৬) হুমায়দাহ আল-বারিকী = (বারিক নামের অর্থ হচ্ছে, উজ্জ্বল।)

(১৭) হিশাম ইবনুল আস = (হিশাম নামের অর্থ সফল বা বিজয়ী নির্দিষ্ট করে।)
(১৮) হুজুর ইবনে আদি = আদি নামের অর্থ হচ্ছে বন্ধুত্বপূর্ণ, উদার, মনোযোগী।
(১৯) হুসাইল ইবনে জাবির = (জাবির নামের আরবি অর্থ; ভাল কাজ সম্পাদনকারী ব্যক্তি, যিনি শক্তিশালী।)
(২০) হোসাইন ইবনে আলী = (আলী নামের অর্থ উন্নত। আবার, ধর্মীয় ও বাংলা অভিধান ভেদে আলী নামের অন্য একটি অর্থ হলো সম্ভ্রান্ত মুসলমানের পদবী।)
(২১) হুযাইফা ইবনুল ইয়ামান  = (ইয়েমেন নামের অর্থ ধন্য, “সৃষ্টিকর্তার অনুগ্রহপ্রাপ্ত”।
(২২) হুজায়ফা বিন মিহসান = (হুজাইফা নামের অর্থ নবীর একজন সহচর।)

ত দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) তালহা ইবনে বারা = (বারাকাহ অর্থ হচ্ছে আধিক্য, প্রাচুর্য ও অতিরিক্ত হওয়া ইত্যাদি।)
(২) তালহা ইবনে উবাইদিল্লাহ = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৩) তুফাইল ইবনে আমর আদ-দাওসি = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৪) তামিম আল-আনসারি = (তামিম নামের অর্থ হচ্ছে শক্তিশালী, দৃঢ়, সম্পূর্ণ, সমাপ্ত।)
(৫) তুলাইব ইবনে উমাইর = (তুলাইব নামের অর্থ সফল বা বিজয়ী নির্দিষ্ট করে।)

শ দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) শাম্মাস ইবনে উসমান = (উসমান অর্থ হচ্ছে – জ্ঞানী, সবচেয়ে শক্তিশালী, স্বজ্ঞাত।)
(২) শিফা বিনতে আবদুল্লাহ = (আব্দুল্লাহ নামের আরবি অর্থ হলো – আল্লাহর বান্দা বা আল্লাহর দাস।)
(৩) শাদাদ ইবনে আউস = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৪) শুকরান সালেহ = (সালেহ নামের অর্থ সফল বা বিজয়ী নির্দিষ্ট করে।)
(৫) শুরাহবিল ইবনে হাসানা = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৬) শুজা ইবনে ওয়াহাব = (ওয়াহাব নামের অর্থ মহাদানশীল।)

ব দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) বিলাল ইবনে রাবাহ = (বিল্লাল নামের আরবি অর্থ পানি)
(২) বুরাইদাহ ইবনুল হুসাইব = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৩) বশির ইবনে শা’আদ =(বশির নামের অর্থ হলোঃ বুদ্ধিমান,উজ্জ্বল।)
(৪) বুদাইল ইবনে ওয়ারকা = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৫) বুজাইর ইবনে যুহাইর = (যুহাইর নামের অর্থ হচলোঃ ঝিলিমিলি, উজ্জ্বল, জ্বলজ্বলে।)
(৬) বাহহাস ইবনে সালাবা = (বাহাস নামের অর্থ হচ্ছে- পণ্ডিত, গবেষক)

ই দিয়ে সাহাবীদের নামের তালিকাঃ

(১) ইয়াসির ইবনে আমির = (ইয়াসির নামের অর্থ হলো সহজসাধ্য।)
(২) ইয়াযিদ ইবনে আস সাকান = (ইয়াযিদ নামের অর্থ হলোঃ বৃদ্ধি, প্রাচুর্য (উৎপত্তি আরবি))
(৩) ইয়াজিদ ইবনে আবি সুফিয়ান = (সুফিয়ান নামের আক্ষরিক অর্থ হলো দ্রুত চলমান। এছাড়াও বিভিন্ন উৎস থেকে পাওয়া সুফিয়ান নামের আরো অর্থ হলো চটপটে।)
(৪) ইয়াযিদ ইবনে সালাবা = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৫) ইয়াজিদ ইবনে কায়স = (কায়স নামের অর্থ হচ্ছে, পরিমাণ।)
(৬) ইয়াস ইবনে আবুল বুকায়র = আমরা আন্তরিকাবে দুঃখিত কারন এ নামটির অর্থ খুজেঁ পেলাম না।
(৭) ইব্রাহিম ইবনে মুহাম্মাদ = (ইব্রাহিম নামের অর্থ অন্তরঙ্গ বন্ধু।)
(৮) ইকরিমা ইবনে আবি জাহল = (ইকরিমা নামের অর্থ সফল বা বিজয়ী নির্দিষ্ট করে)

উপরোক্ত নামগুলো সবই সাহাবীদের নাম, হয়তো কিছু কিছু নামের অর্থ খুজেঁ পাইনি কিন্তু তারপরেও আমার মনে হয় সব নামগুলোর অর্থই পজিটিভ। যাহোক তারপরেও কোনো নাম আপনার শিশুর জন্য নির্বাচন করার পূর্বে নিকটস্থ হুজুরের কাছে নামটি নিয়ে আলোচনা করে দেখে নিবেন।

পোস্টটি পড়ে উপকৃত হয়ে থাকলে, পোস্ট লিংকটি কপি করে আপনার ফেসবুক আইডিতে একটি পোস্ট দিয়ে সকল বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দিন, যাতে তারাও লাভবান হয়।