June 19, 2024

রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড pdf | Rich dad Poor dad Bangla pdf book download

রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড

রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড by রবার্ট তরু কিয়োসাকি pdf

ধনীরা তাদের সন্তানদের কি এমন শেখায় যেটা গরীব আর মধ্যবিত্তরা শেখায় না? “ভালো করে পড়ালেখা কর যাতে পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করতে পার আর তাইলে তুমি ভালো চাকরি পাবা আর ভবিষ্যতে শুখে-শান্তিতে দিন কাটাইতে পারবা”

আমরা কম বেশি সবাই আমাদের বাবা-মায়ের কাছে এইরকম কথা শুনেছি। আমাদের বাবা-মায়ের দেয়া এই উপদেশ হয়ত আজ থেকে ২০-৩০ বছর আগে আমাদের দেশের পরিপ্রেক্ষিতে কাজে দিত কিন্তু বর্তমান এই প্রতিনিয়ত খুব দ্রুত পরিবর্তনশীল পৃথিবীর জন্যে খুবই ধ্বংসাত্মক একটি উপদেশ এটি।

কখনও ভেবে দেখেছেন কি? আমরা আমাদের জীবনের প্রায় ১৫-২০ বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কাটাই, এর কারন কি? যাতে আমরা শিক্ষা জীবন শেষ করে ভালো অংকের অর্থ বা টাকা উপার্জন করতে পারি। কিন্তু পরিহাসের বিষয় হচ্ছে আমাদের স্কুল কলেজ আমাদের এই অর্থ বা টাকা সম্পর্কে কিছুই শেখায় না। আমাদের স্কুল-কলেজ শুধু শিক্ষাগত আর পেশাদার দক্ষতার উপর গুরুত্ব দেয় কিন্তু অর্থনৈতিক দক্ষতার দিকে ফিরেও তাকায় না। এইজন্যেই দেখবেন অনেক ভালো ভালো পেশাদার মানুষ আছেন যারা স্কুল-কলেজে খুব ভালো রেজাল্ট করেছেন সাথে অনেক স্কিলও বিল্ড আপ করেছেন কিন্তু তারপরও শুধুমাত্র এই “Financial Literacy” না থাকার কারনে তারা অর্থনৈতিক ভাবে দৈনন্দিন জীবনে অনেক ভোগেন।

লেখকের ধনী বাবা আসলে তার বন্ধু মাইকের বাবা ছিল কিন্তু জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক জ্ঞান, এবং প্রত্যেকটা জিনিস অন্যভাবে ভাবা শেখাটা হয়েছিল ধনী বাবার কাছ থেকে। অপরদিকে, গরীব বাবা বলতে লেখক তার নিজের বাবাকেই বুঝিয়েছেন যে কিনা অনেক শিক্ষিত একজন মানুষ ছিল; ভাল চাকরীও করতেন কিন্তু খুব বেশি “Financial Literacy” তার ছিল না।

রবার্টের শিক্ষিত বাবা বলতেন, ভাল পড়াশোনা করো, ভাল রেজাল্ট করো এবং ভাল একটা প্রতিষ্ঠানে চাকরি করো; ধনী বাবা বলতেন ভালো প্রতিষ্ঠানের মালিক হতে।দুজনই পড়াশোনাকে গুরুত্ব দিতেন কিন্তু একটু ভিন্নভাবে।

এখানে দুজনের তফাত ছিল একজন ভাল প্রতিষ্ঠানে কাজের কথা বলতেন, আরএকজন ভাল প্রতিষ্ঠানের মালিক হওয়ার কথা বলতেন। শিক্ষিত বাবা উৎসাহ দিতেন বুদ্ধিমান হতে, ধনী বাবা বলতেন, বুদ্ধিমান লোককে চাকরি দিতে।    দুই বাবাই কর্মজীবনের শুরুতে অর্থ ও পরিবার নিয়ে সংগ্রাম করেছিলেন, কিন্তু টাকাপয়সার ব্যাপারে তাদের দৃষ্টিভঙ্গী ছিল আলাদা।

একজন বলতেন, “অর্থের প্রতি ভালাবাসাই সমস্ত নষ্টের মূল”, অন্যজন বলতেন, “অর্থ যথেষ্ট না থাকাই সমস্ত অনিষ্টের কারণ”।এখান থেকে আমরা বুঝতে পারি আমাদের চিন্তাধারা আমাদের অনেকখানিই নিয়ন্ত্রণ করে।

এক বাবা কোনো এক কাজের ক্ষেত্রে বলেন, “কাজটি আমি করতে পারব না” আর একজন বলেন, “আমি কি কাজটা করতে পারব ??” একটি হল মত আর অন্যটি হল প্রশ্ন। একজন সমস্যাটাতেই ঢুকতে দিচ্ছে না, অন্যজন চিন্তা করতে বাধ্য করছেন।

একজন বিশ্বাস করতেন, তার বাড়িটাই তার সবথেকে বড় বিনিয়োগ ও সবচেয়ে বড় সম্পত্তি। অন্যজন বিশ্বাস করতেন, বাড়িটি তার লায়াবিলিটি বা দায় । আর যদি কারো বাড়িই তার সব থেকে বড় বিনিয়োগ হয় তবে বিপদ অবশ্যম্ভাবী। কারন অ্যাসেট হলো সেই গুলোই যেগুলো দিয়ে আমার টাকা আয় হয়, আর লায়াবিলিটি হল সেগুলো থেকে হয় টাকা খরচ হয় বা কোনো আয় হয়না। আর এক ভাবে বলা যায়, আমার উপস্থিতি ছাড়াই যে উৎসগুলো থেকে আমার জন্য টাকা আসে, সেগুলোই আমার অ্যাসেট। 

চিন্তাধারায় এই ছোট ছোট তফাতগুলোই দিন শেষে বড় পার্থক্য গড়ে দেয়।

সহজ করে বললে এইটাই যে “Financial Literacy” আর “How money works” এই জ্ঞানটুকু ছাড়া আপনি এই দ্রুত পরিবর্তনশীল পৃথিবীর সাথে তাল মেলানর জন্যে মোটেও প্রস্তুত নন যতই আপনি ভালো জায়গায় এ কাজ করেন বা মোটা অংকের টাকা উপার্জন করেন। আর এই “Financial Literacy” সম্পর্কে জানার জন্যেই এই বইটি পড়া দরকার।

কয়েকটি পাঠক রিভিউ পড়ে নিন, রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড বইটির।

১। পাঠক নামঃ SM

জাপানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান রবার্ট তরু কিয়োসাকির একটি যুগান্তকারী বই রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড। ব্যক্তিগত জীবনে একই সঙ্গে সফল বিনিয়োগকারী, উদ্যোক্তা ও শিক্ষাবিদ রবার্ট কিয়োসাকি নিজের সারাজীবনের অর্থনৈতিক অভিজ্ঞতার আলোকে রচনা করেন তার এই বইটি, যা ছয় বছরেরও অধিক সময় ধরে নিউইয়র্ক টাইমস বেস্টসেলার তালিকায় ছিলো৷

ধনীরা তাদের সন্তানদের কী শেখায় যা দরিদ্ররা শেখায় না? কেন দরিদ্র ব্যক্তিরা তাদের দারিদ্র্যের দুর্দশা কাটিয়ে উঠতে পারে না? আর ধনীরাই বা অর্থকে কোন দৃষ্টিতে দেখে? কীভাবে আর কেনই বা তারা এত সম্পদের মালিক হয়? এ সমস্ত প্রশ্নসমূহের চমৎকার উত্তরে সাজানো রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড বইটি৷

নানা ধরনের উপযোগী বিষয়ে পরিপূর্ণ রবার্ট কিয়োসাকির ‘রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড’ বইটি আপনার অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে দিবে৷ আপনি অর্থ সম্পর্কে নতুনভাবে ভাবতে শিখবেন৷ প্রচুর ব্যবহারিক উদাহরণে ভরপুর না হলেও বইটি আপনাকে সঠিক উপায়ে সঠিক খাতে বিনিয়োগ করা শেখাতে ভূমিকা রাখবে৷ প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে চলে আসা ইঁদুর দৌড় থেকে বেরিয়ে আসার দিকনির্দেশনা দিবে এ বইটি৷ কাজেই যদি আপনার আর্থিক বিষয়ে আগ্রহ থাকে কিংবা জীবনে অর্থনৈতিক বিষয়ে সফল হতে চান, তবে নিঃসংকোচে বইটি আপনি আপনার পাঠতালিকায় রাখতে পারেন৷

২।পাঠক নামঃ Israt Rakhi

বইটি ধনী আর গরিবের মানসিক পার্থক্য নিয়ে লেখা।

বইটি মূলত লেখা দুজন পিতার উপদেশ নিয়ে।একজন ধনী ও বুদ্ধিমান পিতা ছিলেন,অন্যজন দরিদ্র উচ্চশিক্ষত ও বুদ্ধিমান ছিলেন।দুজনই তাদের পেশায় সফল ছিলেন।একজনকে সারা জীবন লড়াই করতে হয়েছে অর্থনৈতিক ভাবে।অন্যজন খুব দূত ধনী ব্যক্তি হয়ে উঠছিলেন।

আমার সবাই শিক্ষিত হয় ঠিকই কিন্তু আমরা অর্থনৈতিক ভাবে শিক্ষিত হতে পারি না।যার অর্থনৈতিক ভাবে শিক্ষিত হই তারই ধনী হতে পারে।

এই বইয়ে দুইটি পিতার শিক্ষা পদ্ধতি দেখানো হয়েছে।ধনী পিতা সবসময় অর্থনৈতিক দিকে শিক্ষিত হতে বলতেন।যদি তুমি শিখো,তুমি বেড়ে উঠবে,একজন জ্ঞানী, ধনী ও সুখী তরুন হিসাবে।যদি তুমি না শিখো তবে চাকরি কম বেতন বা তোমার বসকে নিজের সমস্যার জন্য দোষারোপ করবে।ধনীরা ধনী হয় তাদের মানসিকতার কারনে আার গবিররা গরিব হয় তাদের মানসিকতা কারনে। লেখক শিখিয়েছেন কীভাবে নিজের মানসিকতা বদলে ধনী হওয়া যায়।

লেখক এর গরিব পিতা সবসময় জোর দিতেন বিদ্যালয়ের ভালো ভাবে লেখাপড়া করে নিরাপদ একটি চাকরি নিতে।ধনী পিতা সকল বিষয়য়ে জ্ঞান অর্জন করতে শিখাতেন এবং ঝুঁকি নিতে শেখাতেন শেখাতেন। ধনী পিতা তার সন্তানকে সব সময় টাকা বিষয়ে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিতেন। আর গরিব পিতা টাকা নিয়ে কোন আলোচনা করতেন না। লেখক দুই পিতার শিক্ষা পেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি ধনী পিতার শিক্ষাকে মেনে চলতেন। 

এই জন্য তিনি ৬ বছর এর কম সময়ে মিলিয়ন ডলার এর মালিক হন। তিনি এই বইয়ে ধনী মানুষের ও গরিব মানুষের কাজ চিন্তা কাজ করার ধরন অনেক আলাদা এটি বুঝিয়েছেন। গরীব মানুষটার ঝুঁকি নিতে ভয় পায়। তারা টাকা হারানোর ভয় পায়। ধনীরা ঝুঁকি নিতে ভয় পান না। তারা টাকা হারানোর কথা কখনো চিন্তা করেন না। তারা সবকিছু থেকে শিক্ষা অর্জন করে। এজন্যই ধনীরা ধনী হয় আর গরিবরা গরীব থাকে।

৩। পাঠক নামঃ Moin

এত সুন্দর একটা বই আগে কেন পড়লামনা সেজন্য খুব আফসোস হচ্ছে। নিজেকে নতুন করে উপলব্ধি করতে পারলাম। আমার লাইফই পরিবর্তন করে দিয়েছে। আমি কি কি শিখেছি সেটি আপনি বইটি না পড়লে বুঝতেও পারবেননা। অনুবাদটি খুব ভালো হয়েছে। অনুবাদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলব আর সুন্দর সুন্দর কিছু বই অনুবাদ করুন।

 

বইটির সূচিপত্র দেখে নিনঃ 

  1. বইয়ের নামঃ রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড
  2. বইয়ের লেখকঃ রবার্ট তরু কিয়োসাকি
  3. পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১৯৯ টি।
  4. বইয়ের ধরনঃ আত্ন-উন্নয়নমূলক
  5. পিডিএফ সাইজঃ ১৭ মেগাবাইট প্রায়।
  6. ডাউনলোড সার্ভার ১ঃ Read Online / Download
  7. ডাউনলোড সার্ভার ২ঃ রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড pdf

আরো পড়ুনঃ থিংক এন্ড গ্রো রিচ pdf

রকমারির বেস্টসেলার পপুলার একটি বই প্যারাডক্সিকাল সাজিদ pdf | Paradoxical Sajid Pdf

আরো কিছু সেরা আত্ম-উন্নয়ন ও মেডিটেশন pdf বইঃ

১। দ্য ম্যাজিক অব থিংকিং pdf বই

২। তুমিও জিতবে পিডিএফ বই

৩। মোরা বড় হতে চাই পিডিএফ বই

৪। মাইন্ডসেট: চেন্জিং দ্য ওয়ে ইউ থিংক টু ফুলফিল ইয়োর পটেনশিয়াল পিডিএফ বই

৫। ৭ স্ট্রাটেজি ফর ওয়েলথ এন্ড হ্যাপিনেস পিডিএফ বই

৬। দ্য মিরাকল মর্নিং pdf বই

৭। Leadership – নেতৃত্ব প্রদান পিডিএফ বই

Must Know:

আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থেকে, আপনার সমস্যার কথা জানাতে পারেন। ফেসবুক পেজঃ Purepdfbook   আমরা হেল্প করার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ। 

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলের সাথে যুক্ত থাকুন

ইউটিউব চ্যানেলঃ Purepdfbook

#বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগীত। #লেখকের ক্ষতি আমাদের কাম্য নয়,  বইটির হার্ড কপি কেনার সমর্থ থাকলে বইটির হার্ড কপি কিনে পড়ুন।

রকমারিঃ রিচ ড্যাড পুওর ড্যাড বই

আমাদের ব্লগে আপনার কোনো যদি পিডিএফ  থাকে,  আপনার অভিযোগ থাকলে   আমাদের জানানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে রিমুভ করে দিবো।

ক্রেডিটঃ Foial Ahmed ভাই। 

ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ পোস্ট টি পড়ার জন্য।

Dreamer

শিখতে ও শেখাতে ভালোবাসি ...........

View all posts by Dreamer →