December 5, 2023

রিচার্জ ইয়োর ডাউন ব্যাটারি PDF Download | Recharge Your Down Battery Pdf

রিচার্জ Your ডাউন ব্যাটারি pdf- বই রিভিউঃ

বইয়ের নামঃ “রিচার্জ Your ডাউন ব্যাটারি

লেখকঃ Jhankar Mahbub

চট্টগ্রামে থাকি তাই বলে লেইট করে বই পাবো তা তো হয় না। এবারের বই মেলায় অনেক আত্নউন্নয়ন মূলক বই বের হয়েছে। পড়ার যখন নেশা আছে তখন কি বই ছাড়া থাকা যায়। বইয়ের কিছু তালিকা করে বন্ধুকে দিলাম পাঠিয়ে। দু দিন হলো বই গুলো হাতে পেয়েছে। আজ রিচার্জ your ডাউন ব্যাটারি বইটি সম্পর্কে ভালো খারাপ দিক গুলো তুলে ধরার চেষ্টা করবো ।

. নামঃ রিচার্জ your ডাউন ব্যাটারি এবারের বইয়ের নামটা খুবই ব্যতিক্রম। বইয়ের নামটি দেখেই বইটি পড়ার ইচ্ছা মনে জাগে।

. একটা ভুল ধারণা পালটেছেঃ পরিশ্রমী ছেলেমেয়েরা দিনের পর দিন সাধনা করে যে দক্ষতা অর্জন করে, যে জ্ঞান অর্জন করে অলসরা  সেটাকেই ট্যালেন্ট বলে।

. সাবজেক্ট নিয়ে আমরা অনেকেই ভয় পাইঃ আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা পছন্দের সাবজেক্ট পড়ার সুযোগ না পেলেই মনে করে তার স্বপ্নের সেক্টরে ক্যারিয়ার গড়তে পারবে না – সাবজেক্ট ক্যারিয়ারের জন্য বেরিয়ার বা বাধা না। একটি পয়েন্টে ভাইয়া এই ভুল ধারণাটি ঠিক করে দিয়েছে। কারণ প্রতিদিন এমন অনেকেই আছে যারা কাজ করে যাচ্ছে সেই রিলেটেড সাবজেক্টে পড়ালেখা করেনি। তাই তুমি যদি তোমার সাবজেক্টের বাইরে অন্য কোন  ফিল্ডে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করাতে চাইলে তোমাকে নিজের পড়ালেখা ঠিক রেখে বাড়তি সময় দিতে হবে তোমার পছন্দের জায়গায়।

৪. ছবি গুলোঃ টপিক গুলোর সাথে ছবি গুলো দেয়ায় বইটি পড়তে মজার একটি বিষয় সৃষ্টি হয়েছে যা বইটি কে নতুন একটি রুপ দিয়েছে ব্যক্তিগত মতামত যদি দেই আমার অনেক ভালো লেগেছে ছবি গুলো।

৫. ভালো লাগার দিক:

বইয়ের প্রতিটা পৃষ্ঠা পৃষ্ঠায় এত মজা করে, এত হাস্যরসের সহিত তিনি আমাদের তরুন সমাজের ভুলগুলোকে তুলে ধরেছেন, এর আগে কোন মোটিভেশনাল বইতে আমি পাইনি। সাধারণত, মোটিভেশনাল বইগুলো একটু গম্ভীর টাইপের হয়, কিন্তু এটা সম্পূর্ণ বিপরীত। তিনি শুধু সমস্যা গুলোই তুলে ধরেন নি, এগুলোর সমাধানও দিয়েছেন  আর

অন্যের কথার ভয়ে আমরা অনেক সময় আমরা আমাদের স্বপ্নের পথ থেকে সড়ে আসি, কিংবা বন্ধুর ভাইরাসে জীবনে কিভাবে জং ধরে তাই তুলে ধরা হয়েছে বইটি তে।

সবচেয়ে ভালো লেগেছে বইয়ের শেষের দিকটায় এসে। সেখানে ব্যাটারি চার্জ মাপার জন্য সত্যি সত্যি একটা ব্যাটারি দিয়ে দেয়া হয়েছে। তারপর কিভাবে লাইনে আনতে হবে। কী কী স্টেপে কাজ করতে হবে, রুটিন বানাতে হবে স্পেশাল ছুটির দিনগুলো কাজে লাগাতে হবে সেটা নিয়েও এখানে অনেক কিছু তুলে ধরা হয়েছে।

খারাপ কিছু দিক আমার কাছে মনে হয়েছেঃ

১. বইটির শেষের দিকে আবির যে ব্যবসা শুরু করেছিলো সেটা নিয়ে আর একটু বিস্তারিত আলোচনা করলে আমার বুঝতে একটু সুবিধা হত।

২. আমার অনেক বন্ধু এছাড়া আরো অনেকেই আছে যারা ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে ঝামেলায় থাকে এই ব্যপার গুলো নিয়ে একটু টিপস থাকলে বইটি ১০০% পূর্ণতা পেত।

৩. আর কিছু কিছু জায়গায় দেখা গেছে আলোচনা হচ্ছিলো একটি বিষয় নিয়ে ঠিক আছে, কিন্তু এর পর গল্পটা আবার আরেকদিক চলে গেছে। একটু ধারাবাহিতা থাকলে ব্যাপার গুলো পড়তে এবং বুঝতে পাঠকদের জন্যে সুবিধা হত।

আমার বইটি পড়ার উদ্দেশ্যঃ আমি মুলত আত্নউন্নয়ন বিষয় গুলো পড়তে ভালোবাসি আর এই বই পড়ে আমি শিখতে পাড়ি লাইফের জন্য, স্বপ্নের জন্য, অর্জনের জন্য কি করতে হয়।

সব শেষে এটা বলতে চাই, যারা লাইফের চার্জ কতটুকু আছে চেক করতে চায় আর নিজেকে রিচার্জ করতে চায় ঝংকার ভাইয়ের বইটি তাদের কাজে দিবে অনেক।

উপরের রিভিউ টি লিখেছেনঃ Abdullah al Rafid ভাই

২ পাঠক রিভিউঃ

পাঠক নামঃ Md Rajib ভাই

অসংখ্য ধন্যবাদ ঝংকার মাহবুব ভাইয়াকে। ভাইয়ের সব ভিডিওগুলোই দেখা হয় সাধারণত। আর ফেসবুকে তো সিফাস্ট দিয়েই রাখলাম। উনার কোন পোষ্ট যেন মিস না হয়। বরাবরের মতো এইবাররেও ভালো বই হবে বলে আশা রেখেই বইটা নিয়েছিলাম। রকমারিতে দেখার পর সাথে সাথেই অর্ডার দিয়ে দিয়েছিলাম। প্রোগ্রামিং রিলেটেড বই না হওয়া সত্তেও যে এত ভালো হবে সেটা আমি এসপেক্ট করিনি ।

প্রথমে বইটা দেখে মনে ভেবেছিলাম যে তিন-চারদিনে পরে শেষ করবো। কিন্তু সেটা আর হলো না :)। আমি যখন বইটা নিয়ে পড়া শুরু করি তখন এত্ত ভালো লাগছে, যেটা বলে বোঝাতে পারব না। কেননা এই বইটা পড়ে আমার মনে হচ্ছে যে এই বইটা শুধু আমার জন্যই লিখা। একবারে পরে শেষ করে ফেললাম 3।

আমরা সকলেই চাই সফল হতে চাই, কে চায়না সফল হতে। সবারই একটিই উদ্দেশ্যে যে আমি সফল হতে চাই। কিন্তু সফল হওয়ার জন্য কি করা দরকার বা কি প্রয়োজন তা অনেকেই জানি না। নিজেকে সফলতার শীর্ষে পৌঁছাতে সবাই চাই, কিন্তু কি করব বা কি করলেই সাকৃসেস হতে পারব সেটা জানা নেই। এই বইটির মধ্যে সফলতার সকল ধাপ সমূহ দেওয়া আছে যদি কেউ কাজে লাগাতে পারে জীবনে আশা করি, দু’দিন আগে না হয় পরে সফলতার মুখ দেখা যাবেই যাবে।

বিশেষ করে আমার যেটা বিষয়টা বইয়ের ভালো লেগেতে সেটা হলো যে আত্মদিবস এর ব্যপারটা। এটা আসলে বছরে দুই-চারবার পালন করা হত ভাইয়ের পোষ্ট দেখে । কিছুদিন পরে ভুলে যেতাম। আত্মদিবস খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। আত্নদিবস দুই-চারবার যাই করতাম না কেন, অনেক কাজে দিত যেটা আর কোন সময়েই করা হতো না। এবার আশা করি সারাবছরেই করা হবে সপ্তাহে একদিন হলেও, ইনশাল্লাহ।

আত্মদিবসে যেটা হয় মূলত আমার, আত্মদিবস পালন করলে সত্যিই আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। যদি বিশ্বাস না হয় দুই-একবার মনযোগ সহকারে পালন করে দেখতে পারেন।

বইটি আমার মনে হয় সময়োপযোগী একটি ঔষধ বললে হয়তো ভুল হবেনা। আমাদের আশেপাশের অনেক মানুষেই ডিপ্রেশনের ভোগে যদি ভুলেও একবার এ বইটি পড়ে একটু মেনে চলে, আশা করি ডিপ্রেশনের তার লাইফে আর আসবে কিনা সন্দেহ আছে।

বিশ্বাস করবেন কিনা, ২৫ নাম্বার পৃষ্ঠাটা পড়ে আমার চোখে পানি এসে যায়। বইটা না পড়লেও আপনি শুধু ২৫ নাম্বার পৃষ্ঠা পড়ুন সেটা আমার অনুরোধ।

নিজেকে পরিমাপ করবো কিভাবে। আমি নিজেকে কিভাবে জানব। আমি নিজেকে কিভাবে চিনব। এই বইটি পড়ে আপনি নিজেকে চিনতে পারবেন। যেটা আমি পেরেছি।

আমাদের/আমার একটা কমন সমস্যা হলো এই যে, এখন না পরে/পরে না কাল এইভাবে আজ কাজ করা আদো হয় না। এটা এখন থেকে আর হবে না ইনশাল্লাহ।

***গুরুত্বপূর্ণ কিছু অংশ স্টেপ দিলাম

#অপেক্ষা না করে অপশন ধরো…………………

#ভালো না লাগা- একটা জাতীয় সমস্যা

#লেগে থাকাই অর্জন

#বারে বারে লাথি দিলে তালা ঠিকই ভাঙবে

#লাইফের ব্যাটারির চার্জ মাপো

শেষ কথা হলো, বইটি আমাদের দৈনন্দিন ব্যবহৃত ভাষায় লিখা বিধায় সকলের ভালো লাগবে

৩। পাঠক রিভিউঃ

পাঠক নামঃ Syed Ashir Abrar

বই এর প্রথম কিছু পেইজ দেখে কি মনে হয়? কোন কবিতা? আমি আপনাকে দোষ দেব না। বই এর সূচীপত্র যে এমন অন্ত্যমিল নিয়ে লেখা যায় সেটা কে-ই আগে ভেবেছিল?

ছাত্রজীবনে আমরা যতরকম সমস্যার সম্মুখীন হই, সব গুলোর কি সুন্দর সমাধান দেওয়া। যতক্ষণ বইটি পড়ছিলাম মনে হচ্ছিল মাসুম ভাই এর উপদেশ গুলো যেন আবির-সুমনদের জন্য নয়, আমার জন্যই লেখা।

লেখক খুব সুন্দর করেই আমার মনের মধ্যে যেই প্রশ্ন গুলো উঁকিঝুঁকি মারে সেগুলোকে আবির ও তার বন্ধুদের মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। আপনার মনে হবে এই মাসুম ভাই আপনার স্কুল/কলেজ কিংবা ডিপার্টমেন্টেরই বড় ভাই। বইটি অনেকটা মোটিভেশনাল হলেও এতে একটা গল্পের বই এর স্বাদ পাওয়া যাবে। কিছুক্ষণ পরপর একেকটা টুইস্ট, কিংবা এরপর আবির কিংবা তাঁর বন্ধুরা কি প্রশ্ন করে সেটা জানার জন্য একটা কৌতূহল বোধ করবেন।

মাসুম ভাই চলে যাওয়ার পর আবিরের নিজের দায়িত্ব নিজে নেওয়ার গল্প গুলোতে আপনিও মনে মনে চাইবেন এবার নিজেই নিজেকে কন্ট্রোল করতে। এক কথায় অনবদ্য এক বই। এমনে এমনে তোহ বইটি বেস্ট সেলার হয়নি। বইটি না পড়লে আসলেই মিস করবেন।

নিজের ব্যাটারি ডাউন থাকলে, এবং যদি না জানেন কি করে তা রিচার্জ করতে হবে তবে বইটি আপনার জন্য। যারা জানেন তারাও বইটি পড়তে পারেন, কথা দিচ্ছি হতাশ হবেন না।

বইটির সূচিপত্রঃ

Recharge-your-down-battery-pdf
Recharge-your-down-battery
  • বইয়ের নামঃ রিচার্জ Your ডাউন ব্যাটারি
  • বইয়ের লেখকঃ ঝংকার মাহবুব
  • পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১২৪ টি।
  • বইয়ের ধরনঃ ছাত্রজীবন-উন্নয়ন 
  • পিডিএফ সাইজঃ ১৫ মেগাবাইট প্রায়।
  • ডাউনলোডঃ Read Online / Download

#বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগীত।

#লেখকের ক্ষতি আমাদের কাম্য নয়,  বইটির হার্ড কপি কেনার সমর্থ থাকলে বইটির হার্ড কপি কিনে পড়ুন।

১। রকমারিঃ রিচার্জ ইয়োর ডাউন ব্যাটারি

২। বই বাজারঃ রিচার্জ YOUR ডাউন ব্যাটারি

আমাদের ব্লগে আপনার কোনো যদি পিডিএফ  থাকে,  আপনার অভিযোগ থাকলে   আমাদের জানানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে রিমুভ করে দিবো।

ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ পোস্ট টি পড়ার জন্য।

Dreamer

শিখতে ও শেখাতে ভালোবাসি ...........

View all posts by Dreamer →