September 26, 2023

পেনড্রাইভ Pdf download | Pendrive bangla pdf book download

Pendrive

    পেনড্রাইভ কি?

পেনড্রাইভ হচ্ছে একটি পাের্টেবল ইউএসবি মেমােরি ডিভাইস। এটি দিয়ে খুব দ্রুত অডিও, ভিডিও, সফটওয়্যার এবং ফাইল এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে আদান-প্রদান করা যায়।এটি ফ্লাশ ড্রাইভ বা ইউএসবি ড্রাইভ নামে পরিচিত।

পেন ড্রাইভের সুবিধাঃ

১।  এগুলাে সহজে বহনযােগ্য। যেকোনাে স্থানেই বয়ে নেওয়া যায়।

২। ইউএসবি ইন্টারফেস থাকার ফলে প্লাগ এন্ড প্লে সুবিধা পাওয়া যায়।

৩। অতি দ্রুত ডাটা কপি বা রিড করা যায়।
৪। দেখতে ছােট হলেও এগুলাের ধারণক্ষমতা অনেক
৫। বেশি। সর্বোচ্চ ২৫৬ গিগাবাইটের পেন ড্রাইভও বাজারে পাওয়া যায়।

৬। ফুল স্পিডে এই ডিস্কগুলাে ১২ মেগাবিটস পার সেকেন্ডে ডাটা ট্রান্সফার করতে পারে।

৭। আলাদা কোনাে পাওয়ার সাপ্লাইয়েরও প্রয়ােজন হয় না।

৮। ডিউরেবল স্টোরেজ হিসেবেও এটি প্রায় ১০ বছর পর্যন্ত ডাটা ধরে রাখতে পারে।

৯। উইন্ডােজ, ম্যাক ওএসএক্স কিংবা লিনাক্স সকল প্লাটফর্মেই এটি ব্যবহার করা যায়।

পেনড্রাইভ pdf

পেনড্রাইভ ব্যবহারে করণীয়ঃ

১। পেন ড্রাইভে ডেটা ব্যাকআপ নেয়ার পর এটির ক্যাপ লাগিয়ে সংরক্ষিত স্থানে রাখা উচিত।

২। কম্পিউটারের ইউএসবি পাের্টে লাগানাের সময় সতর্কতার সাথে লাগাতে হবে।

৩। জোড়ে চাপ দিয়ে লাগালে পেন ড্রাইভের মাথাটি বাঁকা হয়ে যেতে পারে অথবা ভেঙ্গে যেতে পারে।

৪। তরল কোন পদার্থ যাতে পেন ড্রাইভে না লাগে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৫। ভারী কোন জিনিসের নিচে পেন ড্রাইভ রাখা উচিত নয়।

পেনড্রাইভ কিনতে আমরা যে ভূল করে থাকিঃ

সাধারনত পেনড্রাইভ বলতে আমরা একটি ছোট এবং বহনযোগ্য স্টোরেজ ইউনিটকেই বুঝে থাকি। প্রতিদিনের কাজে এটি অনেকভাবে আমাদের উপকার করে থাকে। তবে পেনড্রাইভ কিনার ক্ষেত্রে অনেকেই অনেক বিষয় খেয়াল করে থাকেন না। শুধুমাত্র স্টোরেজ ধারনক্ষমতা দেখেই আমরা পেনড্রাইভ কিনে থাকি। আবার অনেকক্ষেত্রে ৩২ জিবি পেনড্রাইভ লেখা থাকলেও দেখা যায় এতে ৪ জিবি স্টোরেজও নেই এবং নকল পেনড্রাইভ কিনে প্রতারণার স্বীকার হই।

পেনড্রাইভ ক্রয় করার আগে কিছু ব্যাপার দেখে নেয়া ভালো। কারন অনেক ক্ষেত্রে পেন্ড্রাইভের স্টোরেজ থেকে পেন্ড্রাইভের রিড এবং রাইট স্পিডটা অনেক গুরুত্বপুর্ন।

১। স্টোরেজের পাশাপাশি পেনড্রাইভের ইন্টারফেস দেখে কিনুন। ইউএসবি ২.০ নাকি ৩.১ বা  ৩.২ নিবেন এটি সম্পূর্ন আপনার উপরে নির্ভর করে থাকে। তবে, তৃতীয় প্রজন্মের পেনড্রাইভগুলো ইউএসবি ২.০ সাপোর্ট করবে। এই ইন্টারফেসের বা ইউএসবি পোর্টের উপরে সাধারনত ডাটা রিড এবং রাইট স্পিডের উপরে নির্ভর করবে।

২। আন-অথোরাইসড জায়গা থেকে পেন্ড্রাইভ কিনে প্রতারিত হবেন না। সাধারনত যেসব পেনড্রাইভের ব্র্যান্ড বাজারে বেশি বিক্রি হয়ে থাকে সেগুলোর নকল ভার্শন বানানো হয়ে থাকে। এছাড়া পেনড্রাইভে সমস্যা হলে ওয়ারেন্টি নিয়ে ঝামেলা হবে আন-অথোরাইজড দোকান থেকে কিনলে। তাই অথোরাইজড সেলার থেকেই পেনড্রাইভ কিনা উচিত।

৩। ওয়ারেন্টি, সাধারনত সব পেনড্রাইভে লাইফটাইম ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রেও কিছু কিছু পেন্ড্রাইভ ব্র্যান্ড লাইফটাইম ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে না। অধিকাংশ পেনড্রাইভের ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকা রাইট করার মতো ক্ষমতা থেকে থাকে। এর পরে পেনড্রাইভে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে অধিকাংশ পেনড্রাইভ অনেক দিন দীর্ঘস্থায়ী হয়ে থাকে।

৪। সবক্ষেত্রে ছোট পেনড্রাইভ ভালো হয়ে থাকে না কারন কিছু কিছু পেনড্রাইভ কোম্পানি ছোট সাইজের পেনড্রাইভে ভালো মানের চিপ ব্যাবহার করে থাকে না। তার মানে এই নয় যে ছোট আকারের পেনড্রাইভগুলো ভালো নয়। জনপ্রিয় পেনড্রাইভ ব্র্যান্ডগুলো যেমন, ADATA ব্র্যান্ডের কিছু পেন্ড্রাইভ আছে যেগুলো অপেক্ষাকৃত দামী কিন্তু যথেস্ট ছোট আকারের। এসব পেনড্রাইভে যথেষ্ট ভালো মানের চিপ ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

৫। একাধিক পোর্টের পেনড্রাইভ। অনেকে ওটিজি সুবিধার জন্য একাধিক পোর্টের পেনড্রাইভ কিনে থাকেন। এক্ষেত্রে সস্তা পেনড্রাইভ গুলোর রিড এবং রাইটিং স্পিড অনেক কম হয় এবং মাঝে মাঝে পেনড্রাইভ ফোনে লাগালে নাও ডিটেক্ট হতে পারে। তাই এক্ষেত্রে অপেক্ষাকৃত বেশি দামের পেনড্রাইভ নেয়া ভালো।

৬। শক্তোপোক্ত বিল্ড কোয়ালিটির পেনড্রাইভ কিনুন। সাধারনত পেনড্রাইভ প্লাস্টিকের খোলসের মধ্যে থেকে থাকে কিন্তু মেটাল বিল্ড খোলস থাকলে পেনড্রাইভ ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

দামের খবরঃ বাজারে ৪০০ টাকা থেকে শুরু করে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত পেনড্রাইভ পাওয়া যাচ্ছে। ১৬ জিবি ADATA ব্র্যান্ডের পেনড্রাইভগুলো ৪০০ থেকে ৬০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে। ৩২ জিবি পেনড্রাইভগুলো মডেলভেদে ৬৫০ থেকে ৯০০ টাকার ভিতরে পাওয়া যাবে। এর ৯০০ টাকা পর থেকে ৬৪ জিবি পেনড্রাইভ পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে মডেলভেদে এবং পেনড্রাইভের বিল্ড কোয়ালিটি ভেদে দামের তারতম্য হতে পারে।

পেনড্রাইভ কি এটা আমার কাউকে চিনিয়ে দিতে হবেনা। আমার ধারনা এমন কাউকে পাওয়া যাবেনা যিনি পেনড্রাইভ চিনেন না এবং এমন কাউকে পাওয়া ও যাবেনা চিনি পেনড্রাইভ দিয়ে কি করে জানেনা। আচ্ছা সবাই ই তো চিনে জানে তাহলে এই পেনড্রাইভ নামক পিডিএফ বইটি নিয়ে পোস্ট করার কি প্রয়োজন ছিলো? জ্বী আমাকে এ প্রশ্ন করতে পারেন।

এ বইটি দিয়ে পোস্ট করার উদ্দেশ্যে হলো, যারা কম্পিউটার ব্যবহারকারী রয়েছে তাদের মধ্যে সবাই এক্সপার্ট নয়, সবকিছু সম্পর্কে। পেনড্রাইভ বইটির সম্পর্কে  সংক্ষেপে যদি আমি বলি তাহলে বলা যায়, এই বইটি পড়ে আপনি পেনড্রাইভের বিভিন্ন রকমের যে সমস্যা গুলো হয় তা সলভ করতে পারবেন। তাই আপনার এ বইটি পড়া প্রয়োজন।

এছাড়াও কিছু এক্সট্রা টিপস এন্ড ট্রিকস রয়েছে এ বইটিতে যেমনঃ

১। আপনার পেনড্রাইভকে বুটেবল করুন একদম সোজা উপায়ে।

২। আপনার পেনড্রাইভের জায়গা বাড়িয়ে নিন।

৩। ইউএসবি দিয়ে ভাইরাস আর ঢুকবেনা আপনার কম্পিউটারে (একটু সচেতন হোন)

নিজেই নিয়ন্ত্রণ করুন আপনার কম্পিউটার পোর্ট।

৪। “উইন টু ফ্লাস” সহজে পেনড্রাইভ থেকে উইন্ডোজ ইনস্টল করার একটি বহনযোগ্যে সফটওয়্যার।

বইয়ের নামঃ পেনড্রাইভ

বইয়ের লেখকঃ তানভীর আহমেদ রাজীব।

পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১৮ টি।

বইয়ের ধরনঃ কম্পিউটার বেসিক ।

পিডিএফ সাইজঃ ৫ মেগাবাইট প্রায়।

ডাউনলোডঃ Read Online / Download

Best Computer learning Books:

১। উইন্ডোজ কিবোর্ড শর্টকার্ট Pdf | Windows keyboard Shortcut Bangla pdf

Download

২। উইন্ডোজ এক্সপি সেটাপ ইন্সট্রাকশন pdf| Windows XP Setup instruction bangla pdf

Download

৩। কম্পিউটারের ইতিহাস??? pdf | History of computer bangla pdf

Download 

৪। এপ্লিকেশন সফটওয়্যার ইনস্টল এন্ড আনইন্সটল pdf | Application Software Install & Uninstall process pdf

Download 

৫। কম্পিউটারের বিভিন্ন সমস্যা ও সমাধানের উপায় pdf

Download 

৬। কম্পিউটার ভাইরাস pdf download | Computer Virus Bangla pdf Book

৬। কম্পিউটার হার্ডওয়্যার অ্যাসেম্বলিং বা সংযোজন pdf download

Download

৭। নেটওয়ার্কিং Pdf Download | Networking বাংলায় শিখুন

Download

৮। ল্যাপটপ সমস্যার সমাধান pdf download | নিজেই সলভ করুন

Download

৯। কম্পিউটার ড্রাইভার প্রবলেম pdf download | Computer driver problem Bangla pdf Book

Download

১০। পেনড্রাইভ পিডিএফ ডাউনলোড

Download

Download 

computer learning Bangla Pdf download

Must Know: কম্পিউটারের কোনোরকম কোনো সমস্যা হলে সেটি সমাধান করার জন্য, কম্পিউটার সমস্যার সমাধান গ্রুপে পোস্ট করতে পারেন

ফেসবুক গ্রুপঃ কম্পিউটার সমস্যার সমাধান ফেসবুক গ্রুপে আপনার সমস্যা নিয়ে পোস্ট করে আলোচনা করতে পারেন।

এবং সমাধান ও পেতে পারেন।

খুবই হেল্পফুল একটি ফেসবুক গ্রুপ এটি ।

আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থেকে, আপনার সমস্যার কথা জানাতে পারেন।

ফেসবুক পেজঃ Purepdfbook 

আমরা হেল্প করার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলের সাথে যুক্ত থাকুন

ইউটিউব চ্যানেলঃ Purepdfbook

বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগীত।

আমাদের ব্লগে আপনার কোনো যদি পিডিএফ  থাকে,  আপনার অভিযোগ থাকলে   আমাদের জানানোর ২৪ ঘন্টার মধ্যে রিমুভ করে দিবো।

ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। ধন্যবাদ পোস্ট টি পড়ার জন্য।