February 28, 2024

জ দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ | J Diye Sahabider Name Orthosoho – by Ayub

জ দিয়ে পুরুষ/ছেলে / মহিলা সাহাবীদের সেরা নামগুলো অর্থসহ – জ দিয়ে কোরআনে বর্ণিত সাহাবীদের নামগুলো। কোরআনে বর্ণিত জ দিয়ে সাহাবীদের শ্রেষ্ঠ নামগুলো।

প্রিয় ভাই ও বোনেরা যারা ইন্টারনেটে বা online এ “জ দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ ” এভাবে খুঁজেছেন তাদের জন্য এই পোস্ট টি লিখতেছি। আশাকরি আপনাদের সবার কাছে ভালো লাগবে ইনশাআল্লাহ।

আসসালামু আলাইকুম। আশাকরি আল্লাহর রহমতে সবাই ভলো আছেন আমিও আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি, আজকে আমি আপনাদের মানে আমার প্রিয় মুসলিম ভাইবোনের কথা ভেবেই এই পোস্টটি তৈরী করেছি। ইসলামের দৃ‌ষ্টিতে বাচ্চা ভূমিষ্ঠ মানে জন্ম হওয়ার পর পরই শিশুটির সুন্দর একটি নাম রাখা সকল পিতামাতার দায়িত্ব ও কর্তাব্য।

শিশুর নামের অর্থের উপরেই ডিপেন্ড করে শিশুটি বড় হয়ে রাগী মেজাজের কবে নাকি, নরম মনের মানুষ হবে। প্রতিটি মানুষের নামের প্রভাবে কিন্তু ভালো কাজে বা মন্দ কাজে অনিচ্ছাকৃতভাবে জড়িয়ে পড়ে। যাইহোক এ ব্যাপারে অনেক সহীহ হাদিস রয়েছে যা আপনার একটু কষ্ট করে হার্ড কপিতে বা সফট কবি হাদিস বইয়ে অথবা ইউটিউব করে বিভিন্ন হুজুরের মুখে ও শুনতে পারেন।

জ দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহ

আমি এই পোস্টে বাছাই করা সুন্দর সুন্দর জ দিয়ে সাহাবীদের নাম শেয়ার করবো, এবং আশাকরি উপকৃত হবেন সবাই।

জ দিয়ে সাহাবীদের নাম অর্থসহঃ

(১) জাফর ইবনে আবি তালিব – নামের অর্থ = (তালিব অর্থ হচ্ছে – হচ্ছে শুভেচ্ছা, প্রেরক (সত্যের), ছাত্র, প্রেমিক, সত্যের সন্ধানকারী।)
(২) জাবান আল কুর্দি – নামের অর্থ = (যবান অর্থ হচ্ছে, জিহ্বা, ভাষা।)
(৩) জাবির ইবনে আতিক – নামের অর্থ = (আতিক অর্থ হচ্ছে- পবিত্র, উদার, মহৎ, মহানুভব।)
(৪) জাবির ইবনে আবদুল্লাহ – নামের অর্থ = (আব্দুল্লাহ অর্থ হচ্ছে- আল্লাহর দাস, আল্লাহর প্রিয় বান্দা।)
(৫) জারির ইবনে আবদুল্লাহ আল বাজালী – নামের অর্থ = (জারির অর্থ হচ্ছে – একজন যে টানতে পারে, যে তুলতে পারে।)
(৬) জায়েদ ইবনুল খাত্তাব – নামের অর্থ = (খাত্তাব অর্থ হচ্ছে – সুবক্তা)
(৭) জুবাইর ইবনে মুতইম – নামের অর্থ = (জুবাইর অর্থ হচ্ছে- বুদ্ধিমান)
(৮) জিবর ইবনে উতাইক – নামের অর্থ = (উতাইক অর্থ হচ্ছে – উদারতা, ধার্মিকতা, পুণ্য।)
(৯) জুলাইবিব – নামের অর্থ = (জুলাইবিব অর্থ হচ্ছে – সাহসী শহীদ)

উপরোক্ত নামগুলো সবই সাহাবীদের নাম, হয়তো কিছু কিছু নামের অর্থ খুজেঁ পাইনি কিন্তু তারপরেও আমার মনে হয় সব নামগুলোর অর্থই পজিটিভ। যাহোক তারপরেও কোনো নাম আপনার শিশুর জন্য নির্বাচন করার পূর্বে নিকটস্থ হুজুরের কাছে নামটি নিয়ে আলোচনা করে দেখে নিবেন।

পোস্টটি পড়ে উপকৃত হয়ে থাকলে, পোস্ট লিংকটি কপি করে আপনার ফেসবুক আইডিতে একটি পোস্ট দিয়ে সকল বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দিন, যাতে তারাও লাভবান হয়।