April 15, 2024

জাল – মাসুদ রানা pdf download | Jal Masud Rana pdf

জাল হলো মাসুদ রানা সিরিজের একটি বই, সব বইগুলোর মতোই এটিও খুবই ভালো একটি বই লেখক আনোয়ার হোসেনের। 

বইটি থেকে প্রথম কিছু অংশ হুবুহু তুলে ধরা হলোঃ

ওয়াশিংটন। আমেরিকার বীর সন্তান জর্জ ওয়াশিংটন। প্রথম প্রেসিডেন্ট। তারই নামানুসারে এই শহরের নাম। ওয়াশিংটন। হােটেল একসেলশিয়র। গাড়ি-বারান্দায় ব্রেক কষার শব্দ উঠল। ঝাঁকুনি দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ল গাড়িটা প্রকাণ্ড কালাে ফোর্ড একটা।

চট করে নেমে দরজা মেলে ধরল ড্রাইভার। চড় রােদুর এগিয়ে এল শশব্যস্ত পাের্টার। খটাস করে বুট জুতাের শব্দ হলাে। স্যালুড মারল ড্রাইভার। গাড়ি থেকে নামল ইস্পাতের মত কঠিন পুরুষ একজন। সুঠাম ঋজু। পাশুটে রঙের কড়া ভঁজের ট্রপিকালের সুট পরনে। সিল্কের কালাে টাই ক্লিন শেভ। ব্যাক ব্রাশ করা কালাে চুল। উন্নত গ্রীবা তুলে বত্রিশতলা বিল্ডিংটা দেলি একবার। উর্দিপরা পাের্টার স্যালুট ঠুকে হাত বাড়িয়ে দিল।

মাসুদ রানা।

হাতের ঘাম মুছে ধবধবে সাদা রুমালটা ফেরত দিল রানা। আশাতীত বকশিশ পেয়ে আর একবার স্যালুট মারল ড্রাইভার। টার্ন নিয়ে সাঁ করে বেরিয়ে গেল গাড়িট হােটেল কম্পাউড থেকে। ‘হ্যালাে,’ খাতির করে আসন ছেড়ে উঠে দাড়াল রিসেপশনিস্ট মেয়েটি দাড়াল না রানা। মৃদু নড় করে গটগট করে এগিয়ে চলল।

লাউঞ্জ এখনও জমজমাট হয়ে ওঠেনি। ছড়িয়ে ছিটিয়ে বসেছে কয়েক জোড় নারী-পুরুষ। চোখ তুলে তাকাল কেউ কেউ। মা-আ-আ-সুদ রা-আ-না-আ! পুব দিকের কর্নারের একটা সােফা হতে বিলম্বিত সুর ভেসে এল। বাঁ হাত তুলে এক স্বর্ণকেশী আহ্বান জানাচ্ছে। হাই! যপথে অবিচলিত থেকে হাত নাড়ল রানা। ডিনারে পরিচয় হয়েছিল ।

আরো পড়ুনঃ

সাথে দেখা হলেই ভাব-ভালবাসা সহ আত্মসমর্পণ করতে চায়। বুড়িটার দিকে চোখ পড়ল রানার। একনাগাড়ে বিয়ার গিলছে বুড়ি। রােজকার ব্যাপার।

 সকাল থেকে একটানা লাঞ্চ পর্যন্ত চলে। বয়স ষাট। ভেঙে পড়েছে স্বাস্থ্য বুড়িকে যতবার দেখে, রাঙার মার কথা মনে পড়ে যায় রানার। কি দুস্তর ব্যবধান! উপর থেকে নেমে এল এলিভেটর। খালি। দু’পা এগিয়ে ভিতরে উঠল রানা

আপনাআপনি বন্ধ হয়ে গেল দরজা। ছয় লেখা বােতাম টিপল রানা। বন্ধ হতে গিয়েও আবার দরজা খুলে গেল। তাকাল রানা। বয়স উনিশ-বিশ।

  • বইয়ের নামঃ জাল
  • বইয়ের লেখকঃ আনোয়ার হোসেন 
  • পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৯৩ টি।
  • পিডিএফ সাইজঃ ৪ মেগাবাইট প্রায়।

Dreamer

শিখতে ও শেখাতে ভালোবাসি ...........

View all posts by Dreamer →